বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Nabanna Aviyan: রাস্তায় আন্দোলন করছেন কর্মীরা, লালবাজারে আড্ডা–চা পানে মাতলেন বিজেপি নেতারা
আরামে গল্প করে কাটালেন নেতারা।

Nabanna Aviyan: রাস্তায় আন্দোলন করছেন কর্মীরা, লালবাজারে আড্ডা–চা পানে মাতলেন বিজেপি নেতারা

  • আটক অবস্থায় বিজেপি নেতাদের লালবাজারের অন্দর থেকে প্রকাশ্যে এসেছে কয়েকটি ছবি। সেখানে দেখা যাচ্ছে শুভেন্দু অধিকারী, লকেট চট্টোপাধ্যায়রা খোশমেজাজে আড্ডা দিচ্ছেন। এমনকী আড্ডার মেজাজে চা, ঠান্ডা পানীয় নিয়ে খোশগল্প চলছে। এই ছবিগুলি প্রকাশ্যে আসতেই কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ বাড়তে শুরু করেছে।

বিজেপির নবান্ন অভিযানে যখন রাস্তায় তুলকালান পরিস্থিতির মধ্যে কর্মীরা তখন লালবাজারে আটক হয়ে আরামে গল্প করে কাটালেন নেতারা। কেউ গল্প করে হাসছেন। কেউ চেয়ারে গা এলিয়ে দিয়ে বসে রয়েছেন। এমনকী চায়ের কাপে চুমুক থেকে ঠান্ডা পানীয়ের পান করতেও দেখা গেল নেতাদের। যাঁদের ভরসায় জীবন বাজি রেখে প্রশাসনের সামনে দাঁড়িয়েছিলেন কর্মীরা। কর্মীদের এগিয়ে দিয়ে শীর্ষনেতারা এভাবেই খোশমেজাজে সময় কাটিয়েছেন কলকাতা পুলিশের সদর দফতরে। এবার সেই ছবি প্রকাশ্যে এসেছে। যা নিয়ে দলের অন্দরে কর্মীরাই ক্ষোভে ফুঁসছেন।

ঠিক কী ঘটেছে নবান্ন অভিযানে?‌ বিজেপির নবান্ন অভিযানে সিদ্ধান্ত হয়েছিল যেখানে বাধা দেওয়া হবে সেখানে বসে পড়বেন নেতা–কর্মীরা। কিন্তু দেখা গেল রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী রাস্তায় বাধা পেয়ে না বসে নিজেই প্রিজন ভ্যানে উঠে যান। ফলে দলের সিদ্ধান্ত তিনি মানেননি। দিলীপ ঘোষকেও পুলিশের ব্যারিকেডের সামনে লড়াই করতে দেখা যায়নি। রাহুল সিনহা–লকেট চট্টোপাধ্যায়রা লড়াইয়ের ময়দানে ছিলেন না। একটু চিৎকার–চেঁচামিচি করেই ক্ষান্ত হন। এমনকী দিলীপ ঘোষ হঠাৎ অভিযানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন। তা নিয়ে দলের অন্দরে গুঞ্জন শুরু হয়েছে।

কেমন ছবি সামনে এসেছে?‌ আটক অবস্থায় বিজেপি নেতাদের লালবাজারের অন্দর থেকে প্রকাশ্যে এসেছে কয়েকটি ছবি। সেখানে দেখা যাচ্ছে শুভেন্দু অধিকারী, লকেট চট্টোপাধ্যায়রা খোশমেজাজে আড্ডা দিচ্ছেন। এমনকী আড্ডার মেজাজে চা, ঠান্ডা পানীয় নিয়ে খোশগল্প চলছে। এই ছবিগুলি প্রকাশ্যে আসতেই কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ বাড়তে শুরু করেছে। আর দল করবেন না বলে অনেকে সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন বলে সূত্রের খবর। নিচুতলার কর্মীরা যখন জঙ্গি আন্দোলন করছেন, তখন শীর্ষ নেতারা আড্ডা দিচ্ছেন!‌

কী করে প্রকাশ্যে এল ছবিগুলি?‌ তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সম্পাদক কুণাল ঘোষ এই ছবিগুলি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন। যা এখন ভাইরাল হয়ে পড়েছে। এই ছবি পোস্ট করে তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, ‘‌এর পরেও ওদের মুখে পুলিশের সমালোচনা সাজে? নিজেই হেঁটে হেঁটে বিনা বাধায় পুলিশের গাড়িতে উঠে গ্রেফতার হলেন। তারপর লালবাজারে হাসি, আড্ডা, ফেসবুক লাইভ, এমনকী চা–ও। যত ডায়লগ ময়দানের বাইরে, মিডিয়ার সামনে। এরা বিরোধী দল? সেই ডেডিকেশন কোথায়?’‌

বন্ধ করুন