বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > শুভেন্দুর ডেপুটি পদে তৃণমূলত্যাগী নেতা! 'আদি-বিজেপি'র বঞ্চনা ঘিরে জল্পনা
বিজেপির রাজ্য সদর দপ্তর (ছবি সৌজন্যে পিটিআই)
বিজেপির রাজ্য সদর দপ্তর (ছবি সৌজন্যে পিটিআই)

শুভেন্দুর ডেপুটি পদে তৃণমূলত্যাগী নেতা! 'আদি-বিজেপি'র বঞ্চনা ঘিরে জল্পনা

  • মুকুল রায়ের বিদায়ের পর থেকেই বিজেপির অন্দরে 'ট্রোজান ঘোড়া'র তত্ত্ব জোরালো হয়েছে।

ভোটের ফলাফল প্রকাশের পরই বহু নেতা বিজেপি ছেড়ে পুরোনো দল, তৃণমূলে ফিরতে চাইছেন। তবে এই আবহেও বিজেপিতে দাম বাড়েনি 'আদি' সদস্যদের। বরং ক্রমেই আরও প্রভআবশালী হয়ে উঠছেন তৃণমূলত্যাগী নেতারাই। মুকুল রায়ের বিদায়ের পর বিজেপির অন্দরে 'ট্রোজান ঘোড়া'র তত্ত্ব জোরালো হলেও আদিদের প্রথম সারিতে আনা হচ্ছে না এখনই। এই পরিস্থিতিতে জানা গিয়েছে বিধানসভায় উপ বিরোধী দলনেতা হিসেবে বিজেপি বেছে নিতে পারে কোচবিহারের নাটাবাড়ির বিধায়ক মিহির গোস্বামী।

উল্লেখ্য, মুকুল রায় দল ছাড়ার পর নাকি ফোন করেছিলেন বহু বিজেপি নেতাদের। মিহিরকেও নাকি ফোন করেছিলেন বাংলার রাজনীতির চাণক্য। তবে সেই প্রসঙ্গে মিহিরের স্পষ্ট বক্তব্য, তিনি দল বদল করছেন না। সেই মিহিরকেই বেছে নেওয়া হতে পারে শুভেন্দুর অধিকারীর ডেপুটি হিসেবে। যদিও মিহির গোস্বামীর নামে এখনও সিলমোহর পড়েনি। মিহিরের পাশাপাশি মনোজ টিগ্গার নাম নিয়ে জল্পনা রয়েছে। ২০১৬ সালেও তিনি নির্বাচিত হয়েছিলেন এই পদে। তবে এবারে মিহিরের পাল্লা ভারী বলে মত রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের।

মিহির গোস্বামী প্রবীণ এবং অভিজ্ঞ রাজনীতিবিদ। দীর্ঘদিন ধরে পরিষদীয় রাজনীতি দেখে আসা মিহিরের অভিজ্ঞতাকে তাই কাজে লাগাতে চাইছে বিজেপি। এদিকে শুভেন্দুর প্রভাব যত বাড়ছে, ততই আদি-বিজেপি নেতারা আরও পিছনের সারিতে চলে যাচ্ছেন। যা নিয়ে অসন্তোষ বাড়ছে বিজেপির অন্দরেই।

বন্ধ করুন