বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > আজই তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ অর্জুন সিংয়ের! রবিবাসরীয় বিকেলই কি মাহেন্দ্রক্ষণ?
অর্জুন সিং

আজই তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ অর্জুন সিংয়ের! রবিবাসরীয় বিকেলই কি মাহেন্দ্রক্ষণ?

  • সূত্রের খবর, অর্জুন সিং বিজেপিতে গিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসকে আক্রমণ করেছিলেন। কিন্তু এখন তিনি দেখতে পাচ্ছেন তৃণমূল কংগ্রেসে না ফিরলে তাঁর অস্তিত্ব থাকবে না। ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় বিজেপির হাল বেহাল হবে। তাই নিশ্চিত টিকিট পেতেই তাঁর এই ফিরে আসা। অর্জুনের সঙ্গে তাঁর ছেলে পবন সিংয়েরও ফেরার কথা।

সব ঠিক থাকলে আজ, রবিবার বিকেলে মাঝি অর্জুনের নৌকা পৌঁছবে ক্যামাক স্ট্রিটের সমুদ্র উপকূলে। যেখানে ঝড় উঠেছে। পদ্ম ফুল ছেড়ে আবার জোড়াফুলে ফিরতে চলেছেন বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। আজ, রবিবার বিকেল ৪টে নাগাদ তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিতে পারেন অর্জুন সিং। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ক্যামাক স্ট্রিটের অফিসে ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদের যোগদান সম্ভাবনা প্রবল বলে সূত্রের খবর।

ঠিক কী বলছেন অর্জুন?‌ আজ, রবিবার তিনি সাংবাদিক বৈঠক করে বলেন, ‘‌আমার কোথাও যাওয়ার কথা আছে। কারও সঙ্গে দেখা করার কথা আছে। আমাকে হয়তো কিছুক্ষণের মধ্যেই কলকাতা যেতে হবে। এমন কোনও কথা বা কাজ নেই যে আপনারা জানতে পারবেন না। অঘটন ঘটলে আপনারা জানতে পারবেন। যখন একদিকে যুদ্ধ শুরু হয় বা শেষ হয়, তখন বলাই যায় শেষের কাউন্টডাউন শুরু হয়েছে। কোথাও শুরু তো কোথাও শেষ। একটু অপেক্ষা করুন, সবটা জানতে পারবেন।’‌

ঠিক কী জানা যাচ্ছে?‌ সূত্রের খবর, আগে উত্তর ২৪ পরগনার নেতাদের সঙ্গে অর্জুন সিংয়ের বৈঠক হবে। সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি লিখেছেন, ‘যাঁরা আমার ভিত্তি নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন, তাঁরা নিজেদের দিকে দেখুন। নিজেদের ভিতরে দেখুন।’‌ সেই সঙ্গে একদিন আগেই লিখেছিলেন, ‘যেখানে ঝড় উঠেছে, সেখানেই নৌকা নিয়ে চলো’। তাই নির্মলেন্দু চৌধুরীর সেই গানটা এখন প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠছে রাজ্য–রাজনীতিতে। ‘‌সুজন মাঝি রে, কোন ঘাটে লাগাইবা তোমার নাও!’‌ এখন প্রশ্ন উঠছে, অর্জুন মাঝি কী করবেন?‌ কোন ঘাটে ভেরাবেন তাঁর নৌকো?‌

সূত্রের খবর, অর্জুন সিং বিজেপিতে গিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসকে আক্রমণ করেছিলেন। কিন্তু এখন তিনি দেখতে পাচ্ছেন তৃণমূল কংগ্রেসে না ফিরলে তাঁর অস্তিত্ব থাকবে না। ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় বিজেপির হাল বেহাল হবে। তাই নিশ্চিত টিকিট পেতেই তাঁর এই ফিরে আসা। অর্জুনের সঙ্গে তাঁর ছেলে পবন সিংয়েরও ফেরার কথা। তবে দিনক্ষণ পরিবর্তন হতে পারে। এখন দেখার শেষ পর্যন্ত কি হয়।

বন্ধ করুন