বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌ভোটে আটকাতে না পেরে পথে আটকানো হচ্ছে’‌, শুভেন্দু প্রসঙ্গে আক্রমণ দিলীপের
বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ।
বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

‘‌ভোটে আটকাতে না পেরে পথে আটকানো হচ্ছে’‌, শুভেন্দু প্রসঙ্গে আক্রমণ দিলীপের

  • এবার এই ঘটনা নিয়ে তীব্র নিন্দা করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

বিকাশ ভবনে যেতে গিয়ে বাধা পেয়েছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। এই নিয়ে তিনি জাতীয় মানবাধিকার কমিশন এবং রাজ্যপালকে চিঠি দিয়েছেন। এবার এই ঘটনা নিয়ে তীব্র নিন্দা করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ। একই সঙ্গে রাজ্যের বিভিন্ন বিষয়ে সোচ্চার হয়ে ওঠেন তিনি।

ঠিক কী বলেছেন দিলীপ ঘোষ? ইকোপার্কে প্রাতঃভ্রমণে এসে বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন।‌ রাজ্য সরকারকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‌বিরোধী দলনেতাকে গতকাল আবার বিকাশ ভবন যেতে বাধা দেওয়া হয়েছে। ভোটে আটকাতে না পেরে পথে আটকানো হচ্ছে। গায়ের জোরে আটকানো হচ্ছে। বিজেপির অনুষ্ঠান করতে গেলে আদালতে গিয়ে অনুমতি নিতে হচ্ছে।’‌

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার রাজ্যের স্কুল–কলেজ অবিলম্বে খোলার দাবিতে বিকাশ ভবন যাচ্ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তাঁর নেতৃত্বে বিজেপি বিধায়করাও ছিলেন। তখন শুভেন্দু অধিকারী হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘‌আজ যেতে না দিলে আবার কাল আসব, তারপর দিন আসব।’‌ আজ সরাসরি শুভেন্দু অধিকারীকে সমর্থন করলেন দিলীপ ঘোষ।

এদিন দিলীপ ঘোষ পুরসভার পেনশন বন্ধ নিয়ে বলেন, ‘‌আজ পেনশন বন্ধ হয়েছে। আগামীদিনে বেতন বন্ধ হয়ে যাবে।’‌ পদ্ম সম্মান ইস্যুতে সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়কে নিয়ে তাঁর দাবি, ছ্যাঁচরামির রাজনীতি চলছে। সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়ের ওপর মানসিক চাপ তৈরি করা হয়েছে। কিছু কুটিল লোক চাপ দিয়েছে। যাঁরা জীবনে নিজেরা কোনও পুরষ্কার পাননি, তাঁরাই চাপ দিয়েছে। হতে পারে তাই উনি অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।

বন্ধ করুন