বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Dilip Ghosh: ‘‌বস্তির পার্টি বস্তির কালচার নিয়ে চলে’‌, তৃণমূলকে বেলাগাম আক্রমণ দিলীপের
বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

Dilip Ghosh: ‘‌বস্তির পার্টি বস্তির কালচার নিয়ে চলে’‌, তৃণমূলকে বেলাগাম আক্রমণ দিলীপের

  • আজ, রবিবার সকালে নিউটাউনের ইকোপার্কে প্রাত:ভ্রমণে এসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তিনি। শনিবার ফিরহাদ হাকিম বলেছিলেন, এখনই যদি ভোট হয় বিজেপি ৭৭ কেন ৭টি আসন পাবে না পশ্চিমবঙ্গে। এবার সেই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে বেলাগাম আক্রমণ করে বসলেন দিলীপ ঘোষ।

আবার তৃণমূল কংগ্রেসকে বেলাগাম আক্রমণ করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি তথা মেদিনীপুরের বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষ। আজ, রবিবার সকালে নিউটাউনের ইকোপার্কে প্রাত:ভ্রমণে এসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তিনি। শনিবার ফিরহাদ হাকিম বলেছিলেন, এখনই যদি ভোট হয় বিজেপি ৭৭ কেন ৭টি আসন পাবে না পশ্চিমবঙ্গে। এবার সেই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে বেলাগাম আক্রমণ করে বসলেন দিলীপ ঘোষ।

ঠিক কী বলেছেন মেদিনীপুরের সাংসদ?‌ এদিন তাঁকে বিষয়টি নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তার জবাবে তিনি বলেন, ‘‌এটা ঠিকই ভোটে হার–জিৎ হয়। এবার আগে ওনারা ক্যান্ডিডেট পাবেন কি? যেভাবে কাউন্সিলর থেকে জেলা পরিষদের নেতারা ধরা পড়ছেন, কোটি কোটি টাকা নিচ্ছেন, তৃণমূলের টিকিট দিলেও এবার কেউ নেবে না। উনি কি মূর্খের স্বর্গে বাস করছেন?‌ মানুষ সুযোগ পেলেই ছুড়ে ফেলে দেবে।’‌ এভাবেই বিজেপির পক্ষে সওয়াল করলেন তিনি।

আর কী বলেছেন দিলীপ ঘোষ?‌ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে পাপ্পু বলেছেন। এই মন্তব্য নিয়ে প্রশ্ন করা হলে উত্তরে তিনি বলেন, ‘‌ওদের আবার সংস্কৃতি কি? শিশিরবাবু আমাদের পশ্চিমবঙ্গের সবচেয়ে বলিষ্ঠ রাজনীতিবিদদের মধ্যে একজন। তৃণমূল কংগ্রেসেরই সাংসদ কংগ্রেস থেকে এসেছেন। তাদের বাপ–ঠাকুরদার চেয়ে আগে থেকে রাজনীতি করছেন। তাঁর সমন্ধে কি ধরনের শব্দ প্রয়োগ করেছেন?‌ মুখ্যমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী সম্বন্ধে কি শব্দ প্রয়োগ করেন?‌ মুখ্যমন্ত্রী যদি এই ধরনের শব্দ প্রয়োগ করেন তার চ্যালা চামুণ্ডারা এই ধরনের শব্দ প্রয়োগ করবেই। বস্তির পার্টি বস্তির কালচার নিয়ে চলে। এর বাইরে কিছু হতেই পারে না। যতই সর্বভারতীয় লিখুক কুয়োর ব্যাঙ থাকবে ওরা।’‌

চিটফান্ড নিয়ে সিবিআই তদন্তে আপনার প্রতিক্রিয়া কী?‌ এই বিষয়ে তিনি বলেন ‘‌বাংলার হাজার হাজার মানুষ প্রতারিত। সব তদন্তেরই সমাধান হওয়া উচিত। মানুষ অনেক আশা নিয়ে আদালতে গিয়েছেন। আদালতে নির্দেশে সবকিছু চলছে এখানে পার্টি বা সরকারের ব্যাপার নয়। বাংলার মানুষকে এই ১২ বছর যেভাবে লুট করা হয়েছে, কোন মানুষই এমন নয় যে প্রতারিত হয়নি। তারা সুবিচার চাইছেন। ইডি–সিবিআই চেষ্টা করছে। এত ব্যাপক দুর্নীতির সবকিছুই তদন্ত চলছে।’‌

বন্ধ করুন