বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Dilip Ghosh: ‘যেখানে আটকাবে, সেখানেই বসে পড়ব’, নবান্ন অভিযান নিয়ে হুঙ্কার দিলীপ ঘোষের
দিলীপ ঘোষ

Dilip Ghosh: ‘যেখানে আটকাবে, সেখানেই বসে পড়ব’, নবান্ন অভিযান নিয়ে হুঙ্কার দিলীপ ঘোষের

  • জানা গিয়েছে, বহু জেলা থেকে লোক জোগাড় করতে পারেনি বিজেপি। ফলে বিপুল পরিমাণ মানুষ রাস্তায় নামবে না। আবার মাথার উপর নিম্নচাপের বৃষ্টি থাকায় অনেকেই পরিকল্পনা করেছেন কলকাতায় এসে হোটেল, পার্ক, শপিং মলে ঢুকে পড়বেন। যে বিশাল মিছিলের প্রচার করা হয়েছে তা বাস্তবে কতটা রূপ পাবে সেটা নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে।

আজ, বিজেপির নবান্ন চলো অভিযান। তাই সকাল থেকেই জেলার কর্মীরা শহরে আসতে শুরু করেছেন। তিন দিক দিয়ে নবান্নে আক্রমণ করা হবে বলে পরিকল্পনা নিয়েছেন বঙ্গ–বিজেপির নেতারা। একদিকে হাওড়া স্টেশন থেকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার মিছিল নিয়ে এগিয়ে আসছেন, শিয়ালদা স্টেশন থেকে মিছিল নিয়ে এগিয়ে আসছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আর কোনা এক্সপ্রেসওয়ে থেকে মিছিল নিয়ে আসছেন শুভেন্দু অধিকারী। আর এখান থেকেই হুঙ্কার ছেড়েছেন দিলীপ ঘোষ।

ঠিক কী বলেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি?‌ আজ, মঙ্গলবার শিয়ালদা স্টেশন চত্বরে বিজেপির একটি মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে। সেখানেই দাঁড়িয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‌কোনও বাধাতেই এই কর্মসূচি রোখা যাবে না। যেখানে আমাদের আটকানো হবে, সেখানেই দলীয় কর্মী–সমর্থকরা বসে পড়বেন। যেভাবে বাধা বিঘ্ন উপেক্ষা করে সকলে এসেছেন, ধন্যবাদ জানাই। গতকাল থেকেই পুলিশ জেলায় জেলায় আমাদের কর্মীদের আটকানোর চেষ্টা করেছে। কিন্তু আমাদের বিধায়করা এগিয়ে এসেছেন। বাধা অতিক্রম করে কলকাতায় এসেছেন।’‌

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ সূত্রের খবর, এই নবান্ন অভিযানের নামে হামলা–রক্তারক্তি করতে চাইছে বিজেপি। বিহার–ঝাড়খণ্ড থেকে সশস্ত্র দুষ্কৃতী নিয়ে আসা হচ্ছে। তাই পুলিশকে গোয়েন্দারা সতর্কবার্তা পাঠিয়েছেন। যদিও দিলীপ ঘোষের অভিযোগ, কেন্দ্রের সঙ্গে কথা বলে টাকা খরচ করে ট্রেনের টিকিট কেটেছেন তাঁরা। সেখানে বিজেপি কর্মীদের ট্রেনে উঠতে দেওয়া হয়নি। বহু গাড়ি রাস্তায় আটকে দেওয়া হয়েছে।

কতটা সফল হতে পারে বিজেপির কর্মসূচি?‌ জানা গিয়েছে, বহু জেলা থেকে লোক জোগাড় করতে পারেনি বিজেপি। ফলে বিপুল পরিমাণ মানুষ রাস্তায় নামবে না। আবার মাথার উপর নিম্নচাপের বৃষ্টি থাকায় অনেকেই পরিকল্পনা করেছেন কলকাতায় এসে হোটেল, পার্ক, শপিং মলে ঢুকে পড়বেন। সুতরাং যে বিশাল মিছিলের প্রচার করা হয়েছে তা বাস্তবে কতটা রূপ পাবে সেটা নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। তবে দিলীপ ঘোষ আশাবাদী, লক্ষ মানুষের জমায়েত হবে নবান্ন অভিযানে। ৩৯টি সাংগঠনিক জেলা থেকে ৪ হাজার করে মানুষ আসবে বলেই দাবি তাঁর।

বন্ধ করুন