বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Dilip Ghosh: ‘যাঁরা মোদীকে সরাতে চান, পাবলিক তাঁদের ঝাঁটা দিয়ে বিদায় করবেন’‌, মন্তব্য দিলীপের
বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

Dilip Ghosh: ‘যাঁরা মোদীকে সরাতে চান, পাবলিক তাঁদের ঝাঁটা দিয়ে বিদায় করবেন’‌, মন্তব্য দিলীপের

  • এবার এই সব দলের প্রতিনিধিদের জনগণ ঝাঁটা দিয়ে বিদায় করে দেবেন বলে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ। শুক্রবার সকালে নিউটাউন ইকোপার্কে প্রাতঃভ্রমণে আসেনসাংসদ দিলীপ ঘোষ। আর তারপর রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে কার্যত ক্ষোভ উগড়ে দেন।

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর অবস্থা শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্টের মতো হবে। এই মন্তব্য করেছেন বিরোধীরা। তাতে তৃণমূল কংগ্রেস–সহ অন্যান্য দলও আছে। এবার এই সব দলের প্রতিনিধিদের জনগণ ঝাঁটা দিয়ে বিদায় করে দেবেন বলে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ। শুক্রবার সকালে নিউটাউন ইকোপার্কে প্রাতঃভ্রমণে আসেন সাংসদ দিলীপ ঘোষ। আর তারপর রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে কার্যত ক্ষোভ উগড়ে দেন।

ঠিক কী বলেছেন মেদিনীপুরের সাংসদ?‌ বৃহস্পতিবার বিধাননগর সেন্ট্রাল পার্কে এসে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সরব হয়েছিলেন যে, ক্রমাগত রাজ্যকে বঞ্চনা করে চলেছে কেন্দ্র। সেই অভিযোগ প্রসঙ্গে এদিন দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‌একটাই গান আছে। বারবার গাইতে হয়। অন্য গান ওরা শেখেনি। শুধু বলে দিচ্ছে না, দিচ্ছে না। যা দিয়েছে, তার হিসেব কোথায়? রিটায়ার করা শিক্ষকরা পেনশন পায় না। অবসরের একমাস আগে ফাইল রেডি হয়ে যায়। তাও পায় না কেন? নতুন একাধিক পুর–প্রশাসক বোর্ড হয়েছে। টাকা নেই। রাস্তা খারাপ, সারাইয়ের টাকা নেই। যাঁরা শ্রীলঙ্কার স্বপ্ন দেখছেন, তাঁরা এই রাজ্যে বসেই শ্রীলঙ্কার বর্তমান রূপ দেখতে পাবেন। যাঁরা ভাবছেন মোদীকে সরাবেন, তাঁরা দেখবেন, পাবলিক একদিন ঝাঁটা হাতে তাঁদের বিদায় করে দেবেন।’‌

আর কী বলেছেন তিনি?‌ চাকরির নামে প্রতারণা করার জন্য তেহট্টের বিধায়ক তাপস সাহাকে তলব করা হয়েছে। এই প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘এটা নতুন নয়, আরও অনেকে ডাক পাবে। যে চাকরিগুলি হল, সেগুলি লেটারহেডে রেকমেন্ড করা। যিনি রেকমেন্ড করলেন, কিসের ভিত্তিতে করলেন? এরা কি পরীক্ষা দিয়েছে? কিরকম ফল করেছে? গরমিল প্রচুর। যাদের হাত ধরে এই গরমিল, তারাই একে একে ডাক পাচ্ছেন।’

এরপরই তিনি আসেন কয়লা পাচার কাণ্ড নিয়ে। বিষয়টি নিয়ে তাঁকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, ‘‌কয়লা পাচার নিয়ে অনেকদিন ধরে কেস চলছে। সন্দেহভাজন পাচারকারি, তাদের নামের লিস্ট তৈরি হয়েছে। লক্ষ লক্ষ লোক এই কারবারে যুক্ত। রাষ্ট্রীয় সম্পত্তি লুঠ হয়েছে। সার্বিক তদন্ত হওয়া দরকার।’ যদিও বিজেপির বিধায়কদের বাড়ির লোকজনকে এইমসে চাকরি করিয়ে দেওয়া নিয়ে তিনি কিছু বলেননি।

বন্ধ করুন