বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌প্রচার করতে দেওয়া হচ্ছে না’‌, পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে সোচ্চার দিলীপ
বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

‘‌প্রচার করতে দেওয়া হচ্ছে না’‌, পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে সোচ্চার দিলীপ

  • আজ, শনিবার সকালে পুরসভা নির্বাচনের প্রচারে যান দিলীপ ঘোষ। এদিন বিধাননগর পুরনিগমের ২০ নম্বর ওয়ার্ডে প্রচার করেন দিলীপ ঘোষ।

আবার বাধার মুখে পড়লেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আজ, শনিবার পুরসভা নির্বাচনের প্রচারকে কেন্দ্র করে বিধাননগর পুরনিগমের ২০ নম্বর ওয়ার্ডে ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হয়। জগৎপুরে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে বাধার মুখে পড়েন তিনি বলে অভিযোগ। পুলিশের সঙ্গে কথা কাটাকাটিতে এবং ধস্তাধস্তি করতে দেখা যায় তাঁকে।

ঠিক কী ঘটেছে বিধাননগরে?‌ আজ, শনিবার সকালে পুরসভা নির্বাচনের প্রচারে যান দিলীপ ঘোষ। এদিন বিধাননগর পুরনিগমের ২০ নম্বর ওয়ার্ডে প্রচার করেন দিলীপ ঘোষ। কিন্তু তিনি কোভিড–বিধি না মানায় পুলিশ তাঁকে প্রচারে বাধা দেয় বলে অভিযোগ। তখন তিনি পুলিশের সঙ্গে কথা কাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়েন। এমনকী ধস্তাধস্তি করলে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয়। বিজেপি কর্মীরা মারমুখী হয়ে ওঠেন। তাতে পরিস্থিতি বেশ জটিল হয়ে পড়ে।

এই বিষয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‌পুলিশ ইচ্ছে করে বাধা দিচ্ছে। পুরসভা নির্বাচনে প্রচার করতে দেওয়া হচ্ছে না। গণতন্ত্র হরণ করা হচ্ছে। প্রচার করতে না দিলে ভোট করছেন কেন?’‌ যদিও পরে তিনি প্রচার করতে পারেন নির্বাচন কমিশনের তৈরি করা কোভিড–বিধি মেনে। সেটা পুলিশই তাঁকে দেখান। তখন উত্তপ্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

উল্লেখ্য, আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি বিধাননগর, চন্দননগর, আসানসোল এবং শিলিগুড়ি পুরসভার নির্বাচন। আর আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি, সোমবার রাজ্যের চার পুরসভা ভোটের ফলপ্রকাশ। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে ভোটের প্রচারের ক্ষেত্রে নির্দেশিকা জারি করেছিল রাজ্য নির্বাচন কমিশন। সেখানে রাজনৈতিক দলগুলিকে ভার্চুয়াল প্রচারে জোর দিতে বলা হয়েছে।

বন্ধ করুন