বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > একই মহিলার একই স্বামীর সঙ্গে দ্বিতীয় বিবাহ, বিনয়ের তৃণমূলে যোগ, রসিকতা সুকান্তর
বিনয় তামাং ও রোহিত শর্মা যোগ দিলেন তৃণমূলে। (@AITCofficial/Twitter) (HT_PRINT)
বিনয় তামাং ও রোহিত শর্মা যোগ দিলেন তৃণমূলে। (@AITCofficial/Twitter) (HT_PRINT)

একই মহিলার একই স্বামীর সঙ্গে দ্বিতীয় বিবাহ, বিনয়ের তৃণমূলে যোগ, রসিকতা সুকান্তর

  • বিনয় তামাংয়ের দাবি, আজ ১৬৪দিন হয়ে গেল। এই সময়ের মধ্যে আমি কিন্তু অন্য কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত হইনি।

গত ১৫ জুলাই মোর্চা ছেড়েছিলেন একদা তৃণমূল ঘনিষ্ঠ বিনয় তামাং। এরপর তাঁকে ঘিরে নানা জল্পনা ছড়িয়েছিল পাহাড়ের রাজনীতিতে। আর জিটিএ নির্বাচনের আগে সেই বিনয় তামাং কলকাতার ক্যামাক স্ট্রিটের একটি হোটেলে তৃণমূলে যোগ দিলেন আনুষ্ঠানিকভাবে। কার্শিয়াংয়ের প্রাক্তন বিধায়ক রোহিত শর্মাও যোগ দিলেন তৃণমূলে। আর বিনয়ের এই তৃণমূলে যোগ নিয়ে রীতিমতো রসিকতা করেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার।

তিনি বলেন, একই মহিলার একই স্বামীর সঙ্গে দ্বিতীয় বিবাহ। এভাবেই বিনয় তামাংয়ের তৃণমূলে যোগকে কটাক্ষ করলেন সুকান্ত। তিনি বলেন, ওঁ তো তৃণমূলেরই লোক। পাহাড়ে গোর্খাল্যান্ড আন্দোলনের পর বিমল গুরুংকে ছুরি মেরে জিটিএ চেয়ারম্যান হলেন। বিধানসভায় তৃণমূলের হয়ে লড়লেন। এখন আবার তৃণমূলে যোগ। বলছেন সুকান্ত।

আর তৃণমূলে আসার পরে বিনয় তামাংয়ের দাবি, আজ ১৬৪ দিন হয়ে গেল। এই সময়ের মধ্যে আমি কিন্তু অন্য় কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত হইনি। যোগাযোগও করিনি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ ছিলই। উনি একজন ডায়ানমিক লিডার। এক সময় স্থানীয় পার্টি করতাম। এখন জাতীয় দল করে মানুষের সেবা করতে চাই। আমরা চাই ২০২৪ সালে জাতীয় রাজনীতিতে প্রধানমন্ত্রীর মুখ হিসাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখতে। 

এদিকে কয়েকদিন আগে তৃণমূল ঘনিষ্ঠ মোর্চা নেতা বিমল গুরুংয়ের গলাতেও মমতা প্রসঙ্গে শোনা গিয়েছে ঠিক একই সুর। এদিকে বিগতদিনে পাহাড়ের রাজনীতিতে বিমল গুরুং ও বিনয় তামাং দুজনেই ছিলেন ভিন্ন মেরুতে। তবে কি জিটিএ নির্বাচনকে সামনে রেখে আর কোনও ঝুঁকি নিতে চাইছেন না বিনয়? একেবারে ভিড়ে গেলেন তৃণমূলেই। 

 

তিনি বলেন, একই মহিলার একই স্বামীর সঙ্গে দ্বিতীয় বিবাহ। এভাবেই বিনয় তামাংয়ের তৃণমূলে যোগকে কটাক্ষ করলেন সুকান্ত। তিনি বলেন, ওঁ তো তৃণমূলেরই লোক। পাহাড়ে গোর্খাল্যান্ড আন্দোলনের পর বিমল গুরুংকে ছুরি মেরে জিটিএ চেয়ারম্যান হলেন। বিধানসভায় তৃণমূলের হয়ে লড়লেন। এখন আবার তৃণমূলে যোগ। বলছেন সুকান্ত।

আর তৃণমূলে আসার পরে বিনয় তামাংয়ের দাবি, আজ ১৬৪দিন হয়ে গেল। এই সময়ের মধ্যে আমি কিন্তু অন্য় কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত হইনি। যোগাযোগও করিনি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ ছিলই। উনি একজন ডায়ানমিক লিডার। এক সময় স্থানীয় পার্টি করতাম। এখন জাতীয় দল করে মানুষের সেবা করতে চাই। আমরা চাই ২০২৪ সালে জাতীয় রাজনীতিতে প্রধানমন্ত্রীর মুখ হিসাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখতে। 

এদিকে কয়েকদিন আগে তৃণমূল ঘনিষ্ঠ মোর্চা নেতা বিমল গুরুংয়ের গলাতেও মমতা প্রসঙ্গে শোনা গিয়েছে ঠিক একই সুর। এদিকে বিগতদিনে পাহাড়ের রাজনীতিতে বিমল গুরুং ও বিনয় তামাং দুজনেই ছিলেন ভিন্ন মেরুতে। তবে কি জিটিএ নির্বাচনকে সামনে রেখে আর কোনও ঝুঁকি নিতে চাইছেন না বিনয়? একেবারে ভিড়ে গেলেন তৃণমূলেই। 

|#+|

 

 

বন্ধ করুন