বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌ডিভিসি চিঠি আগেই দিয়েছিল সরকারকে’‌, মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ খারিজ সুকান্তের
বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার।
বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার।

‘‌ডিভিসি চিঠি আগেই দিয়েছিল সরকারকে’‌, মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ খারিজ সুকান্তের

  • আর এই অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি সুকান্ত মজুমদার।

ডিভিসি’‌র জল ছাড়ায় বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে হাওড়া থেকে ঘাটাল। এমনই অভিযোগ তোলা হয়েছে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে। খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ডিভিসি’‌র উদ্দেশ্যে তোপ দেগেছেন। রাজ্যকে না জানিয়ে জল ছাড়ার অভিযোগ তোলা হয়েছে। আর এই অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি সুকান্ত মজুমদার।

ঠিক কী বলেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি?‌ তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘‌আমাদের কাছে খবর আছে জল ছাড়ার আগে ডিভিসি চিঠি দিয়েছিল রাজ্য সরকারকে। আমার কাছে সেই চিঠির প্রতিলিপিও রয়েছে।’‌ সুকান্তর এই মন্তব্যের পর জোর চর্চা শুরু হয়েছে। কারণ প্রশ্ন উঠছে, তাহলে কী মুখ্যমন্ত্রী থেকে মুখ্যসচিব মিথ্যে কথা বলছেন?‌ সরাসরি এই প্রশ্নের উত্তর না দিলেও বিজেপির রাজ্য সভাপতি জানান, সবকিছু জেনেও নিরাপদ আশ্রয়ে সাধারণ মানুষকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়নি।

এদিকে মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ ছিল, রাতের অন্ধকারে জল ছেড়ে ভাসিয়ে দেওয়া হয়েছে। এটা অন্যায়, এটা পাপ। ডিভিসি’‌র কারণেই বন্যা। এটা ম্যান মেড বন্যা। মাইথন, পাঞ্চেত, ডিভিসি’‌র জলাধার থেকে জল ছাড়ায় নদীগুলি ফুলে উঠেছে। এই অভিযোগ উঠতেই পাল্টা সুকান্ত বলেছিলেন, এটা মমতা মেড বন্যা। শুভেন্দু অধিকারী তিন অর্থবর্ষের হিসাব প্রকাশ করার দাবি করেছিলেন।

অন্যদিকে রাজ্যের মুখ্যসচিব জানান, বন্যায় রাজ্যের ২২ লক্ষের বেশি মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। দামোদর, দ্বারকেশ্বর, রূপনারায়ণের জল বিপদসীমার উপর দিয়ে বইছে। আসানসোলেরও বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। বানভাসী পরিস্থিতি মোকাবিলায় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীকে সক্রিয় করা হয়েছে। সেনাও নামাতে হয়েছে। সেখানে বিজেপির রাজ্য সভাপতির এই মন্তব্য রাজ্য–রাজনীতিতে শোরগোল ফেলে দিয়েছে।

বন্ধ করুন