বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কয়েক লাখ টাকার কোকেন নিয়ে নিউ আলিপুরে গ্রেফতার BJP-র যুব মোর্চা নেত্রী-সহ ২
বিজেপি যুব মোর্চা নেত্রী পামেলা গোস্বামী। (ফাইল ছবি, সৌজন্য ফেসবুক @Pamelakolkata)
বিজেপি যুব মোর্চা নেত্রী পামেলা গোস্বামী। (ফাইল ছবি, সৌজন্য ফেসবুক @Pamelakolkata)

কয়েক লাখ টাকার কোকেন নিয়ে নিউ আলিপুরে গ্রেফতার BJP-র যুব মোর্চা নেত্রী-সহ ২

  • পুলিশ তাঁকে গ্রেফতার করেছে। ওই বিজেপি যুব মোর্চা নেত্রীর নাম পামেলা গোস্বামী। কোকেন–সহ তাঁকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

কলকাতায় বিজেপি যুব মোর্চার নেত্রী মাদক নিয়ে ধরা পড়ল। পুলিশ তাঁকে গ্রেফতার করেছে। ওই বিজেপি যুব মোর্চা নেত্রীর নাম পামেলা গোস্বামী। কোকেন–সহ তাঁকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নিউ আলিপুর থেকে কয়েক লাখ টাকার কোকেন উদ্ধার করা হয়েছে তাঁর কাছ থেকে। তাঁর সঙ্গী প্রবীর দে'কেও গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

পুলিশ সূত্রে খবর, শুক্রবার নিউ আলিপুরে নিজের আবাসনের কাছে গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য পামেলা যান। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সেখানেই তাঁকে হাতেনাতে ধরা হয়। নিউ আলিপুর থানার পুলিশ তাঁর গাড়ি থেকে প্রায় ১০০ গ্রাম কোকেনের প্যাকেট পেয়েছেন। যার আনুমানিক মূল্য কয়েক লাখ টাকা। তাঁকে সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরী–সহ বহ সাংসদ মন্ত্রীর সঙ্গে দেখা গিয়েছিল বিভিন্ন সময়ে। তাই এই ঘটনা বিশেষ আলোড়ন ফেলেছে শহরে। সম্প্রতি তিনি বিজেপির যুব মোর্চার রাজনৈতিক কর্মসূচিতে সক্রিয় অংশ নিচ্ছিলেন। পুলিশ আপাতত তদন্ত করে দেখছে, এই বিষয়ে অন্য কারও যোগাযোগ রয়েছে কিনা। কোথায় ওই মাদক নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল, তাও তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

জানা গিয়েছে, হুগলি জেলা বিজেপি যুব মোর্চার পর্যবেক্ষক পামেলা গোস্বামীর বিরুদ্ধে বেআইনিভাবে মাদক কারবারের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ ছিলই। পুলিশ বিষয়টি নিয়ে ওত পেতে ছিল। নির্দিষ্ট খবর পেতেই নিউ আলিপুরের এনআর অ্যাভিনিউ দিয়ে যাওয়ার সময়ে পামেলার গাড়ির পিছু নেয় পুলিশ। প্রায় আটটি গাড়ি দিয়ে তাঁকে ঘিরে ফেলা হয়। পামেলাকে যিনি মাদক সরবরাহ করতেন, সেই প্রবীর দে'ও বিজেপি নেতা বলে পরিচিত। তল্লাশির সময় নেত্রী পামেলার হাতব্যাগ, গাড়ি থেকে উদ্ধার হয় কোকেন।

সূত্রের খবর, চুপিসাড়েই কুকীর্তি চালিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। শহরে বসেই তিনি দিব্যি মাদক পাচার করছিলেন। সঙ্গী বিজেপি নেতা প্রবীর দে তাঁকে মাদক সরবরাহ করতেন। এই বিষয়ে রাজ্য বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য বলেন, ‘আমি এখনও এই বিষয়ে কিছু জানি না। তাই এই বিষয়ে মন্তব্য করা ঠিক হবে না। ওঁদের ব্যাগে মাদক ছিল, নাকি তা ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছিল, তা তদন্তের বিষয়।’‌

বন্ধ করুন