বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > হেস্টিংয়ে নড্ডাকে কালো পতাকা, উঠল কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবি
কালো পতাকা নড্ডাকে। (ছবি সৌজন্য সংগৃহীত)
কালো পতাকা নড্ডাকে। (ছবি সৌজন্য সংগৃহীত)

হেস্টিংয়ে নড্ডাকে কালো পতাকা, উঠল কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবি

  • দু’দিনের সফরে বুধবার বিমানবন্দরে নেমে তিনি কলকাতার হেস্টিংসে দলের নির্বাচনী কার্যালয় উদ্বোধন করতে আসেন। সেখানেই তাঁকে কালো পতাকা দেখানো হয়।

কলকাতার রাস্তাজুড়ে ছেয়ে গিয়েছে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নড্ডার পোস্টার–ব্যানার–ফেস্টুন। কারণ বুধবার তিনি শহরে এসেছেন। দু’দিনের সফরে বুধবার বিমানবন্দরে নেমে তিনি কলকাতার হেস্টিংসে দলের নির্বাচনী কার্যালয় উদ্বোধন করতে আসেন। সেখানেই তাঁকে কালো পতাকা দেখানো হয়।

কৃষি আইন প্রত্যাহার–সহ একাধিক স্লোগান লেখা পোস্টার এবং কালো পতাকা নিয়ে জড়ো হন বিক্ষোভকারীরা। পুলিশ এবং বিজেপি কর্মীরা তাঁদের হঠিয়ে দিতে গেলে একপ্রস্থ ধস্তাধস্তিও হয়। রাস্তায় চিৎকার জুড়ে দেন বিক্ষোভকারীরা। কালা আইন বাতিল করুন বলে স্লোগান তোলা হয়।

বিজেপি সভাপতি রাজ্যে পা রেখে বলেন, ‘‌সোনার বাংলা গড়বে বিজেপি। ২০২১ সালের নির্বাচনে বিজেপি ২০০’-র বেশি আসন পাবে। মমতা সরকারকে উৎখাত করবে বিজেপি। বাংলা সংস্কৃতির জন্য পরিচিত। এখন সেই বাংলায় দুর্নীতি ভরে গিয়েছে। আমরা বাংলার সংস্কৃতিকে ফিরিয়ে নিয়ে আসব।’‌

কালো পতাকা দেখার পর রাজ্য সরকারকে কড়া সমালোচনা করে নাড্ডা বলেন, ‘‌বাংলায় ১৩০ জন বিজেপি কর্মীকে খুন করা হয়েছে। যখন–তখন বিজেপি নেতা-কর্মীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। যাঁরা সরকারের সমালোচনা করছেন, তাঁদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অসহিষ্ণুতার সরকার চালাচ্ছেন।’‌

তবে কারা এই কালো পতাকা দেখিয়েছেন, তা পুলিশ বলতে পারেনি। জেপি নাড্ডার গাড়ি যখন হেস্টিংসের অফিসে ঢুকছিল তখন এই কালো পতাকা দেখানো হয়। গাড়ি থেকে তিনি তা দেখতে পান বলে মনে করা হচ্ছে। তারপরই তিনি বলেন, ‘‌বাংলায় অপরাধ দিনের পর দিন বেড়ে চলেছে। ন্যাশনাল ক্রাইম ব্যুরোকে রিপোর্ট দেওয়া বন্ধ করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। পুলিশকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করছে মমতার সরকার।’‌

বন্ধ করুন