বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বৌবাজারের ধাক্কা! আরও পিছিয়ে যাচ্ছে ইস্ট-ওয়েস্ট ‘ডেডলাইন’, লাগবে আরও ৩ মাস
বৌবাজারে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর কাজ। (ছবি সৌজন্যে পিটিআই)
বৌবাজারে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর কাজ। (ছবি সৌজন্যে পিটিআই)

বৌবাজারের ধাক্কা! আরও পিছিয়ে যাচ্ছে ইস্ট-ওয়েস্ট ‘ডেডলাইন’, লাগবে আরও ৩ মাস

  • ইতিমধ্যে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোয় সল্টলেক সেক্টর ফাইভ থেকে ফুলবাগান পর্যন্ত মেট্রো পরিষেবা চালু হয়েছে। শিয়ালদহ মেট্রো স্টেশন তৈরির কাজ শেষ হয়ে গেলেও সেখান থেকে মেট্রো পরিষেবা শুরু হয়নি।

ফের ধাক্কা খেল ইস্ট–ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের কাজ। ২০২৩ সালের জানুয়ারিতে এই মেট্রো প্রকল্পের কাজ শেষ করার ‘ডেডলাইন’ ছিল। কিন্তু সেই কাজ শেষ হতে আরও সাত–আট মাস দেরি হবে বলেই মনে করছে মেট্রো কর্তৃপক্ষ।

কিছুদিন আগেই বউবাজারে মেট্রোর কাজে জন্য বহু বাড়িতে ফাটল তৈরি হয়। ঘরছাড়া হয়েছেন বহু মানুষ। মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, মেট্রোর সুড়ঙ্গে জল ঢুকে গিয়েছে। সুড়ঙ্গে জল ঢোকা নিয়ন্ত্রণ করা না গেলেই ফাটল নিয়ন্ত্রণে আনা যাবে। মেট্রো রেলের ম্যানেজিং ডিরেক্টর চন্দ্রনাথ ঝাঁ জানান, মেট্রোর সুড়ঙ্গের অবস্থা ভালো নয়। সেজন্য সবসময় পর্যবেক্ষণে রাখা দরকার। এর আগে ২০১৯ সালে বউবাজারে দুর্গাপিতুরি লেনের বাড়িগুলিতে ফাটল দেখা গিয়েছিল।  

 

ইতিমধ্যে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোয় সল্টলেক সেক্টর ফাইভ থেকে ফুলবাগান পর্যন্ত পরিষেবা চালু হয়েছে। শিয়ালদহ মেট্রো স্টেশন তৈরির কাজ শেষ হয়ে গেলেও সেখান থেকে মেট্রো পরিষেবা শুরু হয়নি। কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন ইউপিএ আমলে এই কাজ শুরু হলেও এখনও পর্যন্ত ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের কাজ শেষ হয়নি। কেন্দ্রীয় সরকারের শেষ বাজেট বরাদ্দ অনুযায়ী, এই মেট্রো প্রকল্পে বরাদ্দ হয়েছিল ১১০০ কোটি টাকা। আগের বছরের তুলনায় ২০০ কোটি টাকা বেশি বরাদ্দ করা হয়েছিল। টাকা বরাদ্দ হলেও কাজ এখনও শেষ হচ্ছে না। ঠিক কবে হাওড়া থেকে সল্টলেক পর্যন্ত এই মেট্রো পথ সাধারণ মানুষের জন্য খুলে যাবে, সেটা এখন আলোচনার বিষয়।

বন্ধ করুন