বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > তপসিয়ায় ভাগ্নেকে অপহরণ করে ১০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি মামার
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

তপসিয়ায় ভাগ্নেকে অপহরণ করে ১০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি মামার

  • শুক্রবার বিকেলে পাড়ার মাঠে খেলার পর গায়েব হয়ে যায় সে। শুরু হয় খোঁজ। দীর্ঘক্ষণ খোঁজাখুজির পরও ছেলেকে পাননি মা। এর মধ্যে তাঁর ফোনে এক জন কল করে ১০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

ভাগ্নেকে অপহরণের অভিযোগে কলকাতার তপসিয়ায় গ্রেফতার হল মামা। গভীর রাতে তল্লাশি চালিয়ে বেহালার গেস্ট হাউজ থেকে উদ্ধার করা হল শিশুটিকে। রাতভর নাটকের যবনিকা পড়ল শনিবার ভোরে। 

পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, অপহৃত শিশুটির নাম মহম্মদ কামরান। তপসিয়া রোডে মায়ের সঙ্গে বাস তাঁর। বাবা সৌদি প্রবাসী। শুক্রবার বিকেলে পাড়ার মাঠে খেলার পর গায়েব হয়ে যায় সে। শুরু হয় খোঁজ। দীর্ঘক্ষণ খোঁজাখুজির পরও ছেলেকে পাননি মা। এর মধ্যে তাঁর ফোনে এক জন কল করে ১০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। 

সঙ্গে সঙ্গে তপসিয়া থানায় বিষয়টি জানান আপহৃত শিশুর মা। ফোন নম্বর নিয়ে তার টাওয়ার লোকেশন ট্র্যাক করা শুরু করে পুলিশ। জানা যায়, সেটি বেহালা এলাকায় রয়েছে। এর পর তপসিয়া রোড একালায় যান তদন্তকারীরা। সেখানে কামরান বিকেলে যে বন্ধুদের সঙ্গে খেলছিল তাদের সঙ্গে কথা বলেন। জানতে পারেন, শেষবার কামরানকে দেখা গিয়েছিল তাঁর মামা ইমরানের সঙ্গে।

এবার ইমরানকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে পুলিশ। জেরার মুখে ভেঙে পড়ে পরিকল্পনার কথা স্বীকার করে সে। জানায়, পুরো পরিকল্পনা কার্যকর করতে বিহার থেকে ২ জনকে ভাড়া করেছে সে। কামরানকে রাখা হয়েছে বেহালার একটি গেস্ট হাউজে। গভীর রাতে সেখানে অভিযান চালিয়ে ২ অপহরণকারীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতার হয় ইমরানও। কামরানকে গ্রেফতার করে তুলে দেওয়া হয় তাঁর মায়ের হাতে।  

 

বন্ধ করুন