বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বুদ্ধবাবুর রক্তে CO2-র মাত্রা কমছে, হাসাপাতাল থেকে বেরিয়ে জানালেন রাজ্যপাল
পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। 
পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। 

বুদ্ধবাবুর রক্তে CO2-র মাত্রা কমছে, হাসাপাতাল থেকে বেরিয়ে জানালেন রাজ্যপাল

  • এদিন হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে রাজ্যপাল বলেন, ‘গত ১ ঘণ্টায় বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের শারীরিক অবস্থার আশাব্যঞ্জক উন্নতি হয়েছে। তাঁর রক্তে কার্বন ডাই অক্সাইডের মাত্রা ১০০-র বেশি ছিল। তা ৫০-এর নীচে নেমেছে।

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিতে হাসপাতালে পৌঁছলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। বুধবার সন্ধ্যা ৭.৩০ মিনিট নাগাদ দক্ষিণ কলকাতার বেসরকারি হাসপাতালে পৌঁছন তিনি। বেরিয়ে জানান, সঙ্কটজনক হলেও স্থিতিশীল প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর শারীরিক অবস্থা। রক্তে কমেছে কার্বন ডাই অক্সাইডের মাত্রা।

এদিন হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে রাজ্যপাল বলেন, ‘গত ১ ঘণ্টায় বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের শারীরিক অবস্থার আশাব্যঞ্জক উন্নতি হয়েছে। তাঁর রক্তে কার্বন ডাই অক্সাইডের মাত্রা ১০০-র বেশি ছিল। তা ৫০-এর নীচে নেমেছে। ৫ জন চিকিৎসকের দল তাঁর শারীরিক অবস্থার ওপর নজরদারি চালাচ্ছেন। আমার তাঁদের সঙ্গে কথা হয়েছে। তাঁদের পেশাদারিত্বের জবাব নেই। সঙ্গে রয়েছেন তিনি যে সব চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে সব সময় থাকেন তাঁরাও’।

রাজ্যপাল বলেন, ‘আমি তাঁর সুস্বাস্থ্য কামনা করব। বাংলার রাজনীতি, সমাজ ও নৈতিকতায় তাঁর অবদান অনস্বীকার্য। শেষবার সস্ত্রীক আমি যখন তাঁর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলাম মীরাজি ও তাঁর সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনা হয়েছিল। তাঁর কাছ থেকে আমি অনেক কিছু শিখেছি। তাঁর মতো মানুষের আরো সান্নিধ্য প্রত্যাশা করব। একজন দারুণ মুখ্যমন্ত্রী তো তিনি ছিলেনই, ছিলেন একজন সফল রাজনীতিবিদ, তিনি একজন সজ্জন ব্যক্তি। তিনি হৃদয় থেকে মানুষের জন্য ও রাজ্যের জন্য কাজ করতেন। আমি চাইবো চিকিৎসকদের প্রচেষ্টা সফল হোক এবং আমরা আরও তাঁর সান্নিধ্য পেতে থাকি’। 

শ্বাসকষ্ট নিয়ে বুধবার বিকেলে দক্ষিণ কলকাতার বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে। হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, তাঁর করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ। তবে রক্তে অক্সিজেন সম্পৃক্ততা কম থাকায় তাঁকে ভেন্টিলেনশনে রাখতে হয়।    

 

বন্ধ করুন