বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাস ভাড়া ঠিক করুক সরকার, তুলতে দিতে হবে আরও ১০ জন যাত্রী, দাবি বাসমালিকদের
হাওড়া স্টেশনে বাসে উঠছেন যাত্রীরা (PTI)
হাওড়া স্টেশনে বাসে উঠছেন যাত্রীরা (PTI)

বাস ভাড়া ঠিক করুক সরকার, তুলতে দিতে হবে আরও ১০ জন যাত্রী, দাবি বাসমালিকদের

  • এদিনের বৈঠকে বাসমালিকদের তরফে জানানো হয়, তাদের তরফে আর ভাড়া বৃদ্ধি নিয়ে কোনও প্রস্তাব পেশ করা হবে না। ভাড়া কত বাড়বে তা ঠিক করতে হবে সরকারকে।

দু’মাস লকডাউনের পর অফিস-কাছারি খুলতে শুরু করতেই রাস্তায় নেমে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। চলছে না ট্রেন, বাসও হাতে গোনা। ওদিকে ভাড়া না বাড়ানোয় রাস্তায় বাস নামাতে নারাজ বেসরকারি বাসের মালিকরা। ফলে ঠাঠাপোড়া রোদ্দুরে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হচ্ছে নিত্যযাত্রীদের। এই পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার সামান্য আশার আলো দেখা গেল বাসমালিকদের সঙ্গে পরিবহন দফতরের কর্তাদের বৈঠকে। সেখানে বাসভাড়া ঠিক করার দায়িত্ব রেগুলেটরি কমিটির হাতে ছাড়লেন বাসমালিকরা। বৈঠক থেকে বেরিয়ে বাসমালিকরা জানালেন ইতিবাচক কথাবার্তা হয়েছে। খুব দ্রুত বেসরকারি বাস চলবে। 

এদিনের বৈঠকে বাসমালিকদের তরফে জানানো হয়, তাদের তরফে আর ভাড়া বৃদ্ধি নিয়ে কোনও প্রস্তাব পেশ করা হবে না। ভাড়া কত বাড়বে তা ঠিক করতে হবে সরকারকে। সেজন্য সরকার বাসমালিক ও আধিকারিকদের নিয়ে তৈরি হোক রেগুলেটরি কমিটি। তারাই ঠিক করুক বর্ধিত বাসভাড়া। 

এছাড়াও একটি বিকল্প প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা হয়েছে। বাসে সমস্ত আসন ভরে যাওয়ার পর আরও ১০ জন যাত্রী তোলার অনুমতি চেয়েছেন বাসমালিকরা। বৈঠক শেষে জয়েন্ট কাউন্সিল অফ বাস সিন্ডিকেটের তরফে জানানো হয়, বৈঠক ইতিবাচক হয়েছে। খুব দ্রুত সমাধান সূত্র বেরোবে। ৮ জুন থেকে পশ্চিমবঙ্গে সমস্ত অফিস কাছারি খুলে যাবে। তার আগে রাস্তায় বাস নামাতে বদ্ধপরিকর তারা। 

এদিনের বৈঠকে পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী না থাকলেও ছিলেন দফতরের কর্তারা। জয়েন্ট কাউন্সিল ছাড়াও বৈঠকে হাজির ছিল বাস মালিকদের আরও ৩টি সংগঠন। 

 

বন্ধ করুন