বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > পানীয় খাইয়ে ক্যাব চালকদের বেহুঁশ করে গাড়ি নিয়ে চম্পট দিচ্ছে যুগল
পানীয় খাইয়ে বেহুঁশ করে ক্যাব চালকদের অপহরণ! শহরে যুগলের কাণ্ডে ত্রস্ত চালকরা: ছবি (স্ক্রিন শর্ট)
পানীয় খাইয়ে বেহুঁশ করে ক্যাব চালকদের অপহরণ! শহরে যুগলের কাণ্ডে ত্রস্ত চালকরা: ছবি (স্ক্রিন শর্ট)

পানীয় খাইয়ে ক্যাব চালকদের বেহুঁশ করে গাড়ি নিয়ে চম্পট দিচ্ছে যুগল

  • অভিযোগ উঠেছে, যাত্রী সেজে প্রথমে ক্যাব ভাড়া করছে সপ্রতিভ ছিমছাম চেহারার এক যুগল। তারপর ক্যাবে উঠে চালকদের সঙ্গে আলাপ জমিয়ে নিচ্ছে তারা। তারপর খেতে দেওয়া হচ্ছে তরল পানীয়। সেটি খাওয়ার পরই বেহুঁশ হয়ে পড়ছেন ক্যাব চালকেরা। পরে ওই যুগল চালকদের রাস্তায় ফেলে গাড়ি নিয়ে উধাও হয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

বলিউডি কায়দায় ক্যাব চালকদের তরল পানীয় খাইয়ে বেহুঁশ করে অপহরণের একাধিক অভিযোগ উঠল কলকাতায়। তিনটি পৃথক ঘটনা একই ধরনের ঘটে যাওয়ায়, সন্দেহের তির গিয়ে পড়েছে এক যুগলের উপর। এই তিনটি ঘটনার সঙ্গে একই যুগল যুক্ত আছে কিনা, তার তদন্ত শুরু করেছে কলকাতা পুলিশ।

রীতিমতো বলিউডি সিনেমা বান্টি বাবলির কায়দায় প্রতারণার অভিযোগ উঠল এক যুগলের বিরুদ্ধে। নেশা জাতীয় পানীয় খাইয়ে ক্যাব চালকদের বেহুঁশ করে তাঁদের ক্যাব-সহ অপহরণ করার অভিযোগ উঠেছে ওই যুগলের বিরুদ্ধে।

অভিযোগ উঠেছে, যাত্রী সেজে প্রথমে ক্যাব ভাড়া করছে সপ্রতিভ ছিমছাম চেহারার এক যুগল। তারপর ক্যাবে উঠে চালকদের সঙ্গে আলাপ জমিয়ে নিচ্ছে তারা। তারপর খেতে দেওয়া হচ্ছে তরল পানীয়। সেটি খাওয়ার পরই বেহুঁশ হয়ে পড়ছেন ক্যাব চালকেরা। পরে ওই যুগল চালকদের রাস্তায় ফেলে গাড়ি নিয়ে উধাও হয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এরই মধ্যে তিনজন ক্যাব চালক এই প্রতারকদের খপ্পরে পড়ে সর্বস্ব খুইয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনায় সন্ত্রস্ত হয়ে রয়েছেন শহরের ক্যাব চালকরা।

এই যুগলের খপ্পরে প্রথম পড়েছেন বিষ্ণুপুর থানার সামালির বাসিন্দা পেশায় ক্যাব চালক অভিজিৎ ঘোষ।

তাঁর পরিবারের অভিযোগ, গত ২১ সেপ্টেম্বর উল্টোডাঙা থেকে অভিজিতের ক্যাব ভাড়া করেন এক তরুণ ও তরুণী। ক্যাবে উঠে তাঁর সঙ্গে আলাপ জমিয়ে ফেলে ওই যুগল। তারপর তাকে ঠান্ডা পানীয় খেতে দেওয়া হয়। কিন্তু এই ঠান্ডা পানীয় খাওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই সংজ্ঞা হারিয়ে ফেলেন অভিজিৎ। এরপর ওই যুগল অভিজিতের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। পরিবারের অভিযোগ, এক যুগল তাঁদের ফোনে জানান, দুর্ঘটনার কবলে পড়েছেন তাঁদের ছেলে। সে কারণে হাসপাতালে ভরতি করার জন্য তৎক্ষণাৎ টাকার প্রয়োজন রয়েছে। এই ঘটনার দু'দিন পর বেহালা থানায় ওই ক্যাব চালককে গাড়ি সহ ক্ষতবিক্ষত অবস্থায় পৌঁছে দেওয়া হয়।

থানায় জানানো হয়, ওই ক্যাব চালক নেশাগ্রস্ত অবস্থায় দুর্ঘটনার কবলে পড়েছেন। ওই দুই তরুণ তরুণী ক্যাব চালককে উদ্ধার করে আহত অবস্থায় পৌঁছে দিয়েছেন।

অভিজিতের পরিবারের প্রশ্ন, তাদের ছেলেকে যারা থানায় পৌঁছে দিলেন, তাদের জিজ্ঞাসাবাদ কেন করল না পুলিশ ?

আবার তার আগে ১8 সেপ্টেম্বর একই ধরনের ঘটনা ঘটেছিল। কড়েয়ার বাসিন্দা ক্যাব চালক শেখ শাহনওয়াজেরও একই অভিযোগ। অভিযোগকারী ওই ক্যাব চালকের দাবি, ঘটনার দিনের দুপুরের দিকে নাগেরবাজার থেকে তিন ঘন্টার জন্য তাঁর ক্যাব ভাড়া করেন ২8-২৫ বছর বয়সী যুগল। তাঁকেও ঠান্ডা পানীয় খেতে দেওয়া হয়। তারপরেই সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়েন শাহনওয়াজ। ঘটনার দু'দিন পর ১৬ তারিখে যখন তাঁর জ্ঞান ফেরে, তখন তিনি দেখেন, কাঁকুরগাছির পাশের একটি বাস স্ট্যান্ডে শুয়ে রয়েছেন তিনি। পরে উত্তর দমদমের পুরসভা হাসপাতালের কাছে তাঁর ক্যাবটি উদ্ধার করা হয়। 

অ্যাপ ক্যাব চালকদের সিটু ইউনিয়নের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে, একই ধরনের ঘটনা দক্ষিণ শহরতলীর কামালগাজিতেও ঘটেছে। তাঁদের অভিযোগ, পুলিশ কোনও কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছে না।এমনকী, অ্যাপ ক্যাব সংস্থার কাছেও সাহায্য চাওয়া হয়েছে, কিন্তু সংস্থার তরফ থেকেও এখনও পর্যন্ত কোনও সাহায্য পাওয়া যায়নি।

 

বন্ধ করুন