বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কালকের মধ্যে বদলির ব্যবস্থা করুন, অসুস্থ শিক্ষিকার আবেদনে নির্দেশ আদালতের
কলকাতা হাইকোর্ট (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
কলকাতা হাইকোর্ট (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

কালকের মধ্যে বদলির ব্যবস্থা করুন, অসুস্থ শিক্ষিকার আবেদনে নির্দেশ আদালতের

  • স্নিগ্নাদেবীর দাবি, তিনি অসুস্থ। এই অবস্থায় বাড়ির কাছে বদলির জন্য অন্তত ৪ বার বদলির আবেদন করেছেন তিনি। কিন্তু স্কুল থেকে নো অজেকশন সার্টিফিকেট পাননি। যার ফলে তাঁর অসুস্থতা আরও বেড়েছে।

বাড়ি থেকে ১৪২ কিলোমিটার দূরে স্কুল। অথচ বদলির NOC দিচ্ছে না ম্যানেজিং কমিটি। অভিযোগ পেয়ে শিক্ষিকাকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে বদলির ব্যবস্থা দিতে বলল আদালত। এই ঘটনায় স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ তুলেছেন ওই শিক্ষিকা। স্কুলের দাবি, শিক্ষক কম থাকায় বদলি দেওয়া যায়নি।

পূর্ব বর্ধমানের চান্ডুলের বাসিন্দা স্নিগ্ধা দত্ত হাওড়ার জয়পুরের সুরঙ্গময়ী হাই স্কুলের সংস্কৃতর শিক্ষিকা। বাড়ি থেকে তাঁর স্কুলের দূরত্ব ১৪২ কিলোমিটার। রোজ ওই পথে যাতায়াত করতে ২৮৪ কিলোমিটার পথ পেরোতে হয় বলে দাবি করেছেন তিনি।

স্নিগ্নাদেবীর দাবি, তিনি অসুস্থ। এই অবস্থায় বাড়ির কাছে বদলির জন্য অন্তত ৪ বার বদলির আবেদন করেছেন তিনি। কিন্তু স্কুল থেকে নো অজেকশন সার্টিফিকেট পাননি। যার ফলে তাঁর অসুস্থতা আরও বেড়েছে।

পুজোর আগে বদলির আবেদন জানিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে আবেদন করেন স্নিগ্ধাদেবী। সেই মামলার রায় বেরিয়েছে বৃহস্পতিবার। তাতে ১ দিনের মধ্যে স্নিগ্ধাদেবীকে NOC দিতে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

রায়ের পর স্নিগ্ধা দত্ত জানান, ‘২০১৫ সাল থেকে আমার শরীর খারাপ। স্কুলকে বারবার বলেছি। কিন্তু বদলির অনুমতি পাইনি। স্কুলের কোনও সহযোগিতা পাইনি। আদালতে বিচার পেলাম।’

এই নিয়ে সুরঙ্গময়ী হাই স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির চেয়ারপার্সন কবিতা সাউ বলেন, ‘আমাদের স্কুলে ৫ জন শিক্ষক বদলি নিয়েছেন। স্কুলে শিক্ষকসংখ্যা প্রয়োজনের থেকে কম। আর আদালতে স্নিগ্ধাদেবী শারীরিক অসুস্থতার কথা বললেও সেজন্য তিনি চাকরিজীবনে কখনও ছুটি নেননি। এখানেই বাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকতেন। বাড়ির কাছাকাছি স্কুলে যাওয়ার জন্য আদালতে দূরত্বের কথা বলেছেন। আদালত যে নির্দেশ দিয়েছে তা অক্ষরে অক্ষরে পালন করব।’

 

বন্ধ করুন