বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > চিটফান্ড মামলায় সিবিআই তদন্তে আরও গতি আনা প্রয়োজন: হাইকোর্ট
কলকাতা হাইকোর্ট। ফাইল ছবি। (HT_PRINT)
কলকাতা হাইকোর্ট। ফাইল ছবি। (HT_PRINT)

চিটফান্ড মামলায় সিবিআই তদন্তে আরও গতি আনা প্রয়োজন: হাইকোর্ট

  • সিবিএইয়ের কাজে অসন্তুষ্ট হাইকোর্ট। মামলার তদন্ত দ্রুত শেষ করার নির্দেশ।

চিটফান্ড মামলার দীর্ঘতর হওয়ার জন্য কলকাতা হাইকোর্ট সিবিআইকে দায়ী করল। মামলার মেয়াদ দীর্ঘ হওয়া নিয়ে কলকাতা হাইকোর্ট দুঃখ প্রকাশ করে কার্যত তুলোধোনা করে সিবিআইকে। আদালতের পর্যবেক্ষণ, 'মানুষ বিচারের আশায় আদালতে আসেন। সেক্ষেত্রে বিচার পেতে দেরি হলে কারও ভালো লাগে না।' সিবিআই তদন্তে আরও গতি আনার প্রয়োজন রয়েছে বলে মনে করছে আদালত।' চিটফান্ড সংক্রান্ত মামলায় বিচারপতি জয়মাল্য বাগচী এবং বিচারপতি বিভাস পট্টনায়কের ডিভিশন বেঞ্চের এই পর্যবেক্ষণে স্বাভাবিকভাবেই কিছুটা অস্বস্তিতে পড়ল সিবিআই।

শুক্রবার চিটফান্ড মামলায় দ্রুত বিচারের জন্য কলকাতা হাইকোর্টের কাছে আবেদন জানান আমানতকারীদের আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য এবং শুভাশিস চক্রবর্তী। তাঁদের পরামর্শ, তদন্তকারী সংস্থা সিবিআইকে তদন্তের সময়সীমা বেঁধে দিলে সেক্ষেত্রে তদন্ত আরও দ্রুত শেষ হবে। এদিন বিচারপতি জয়মাল্য বাগচী তদন্তের শ্লথগতি নিয়ে সিবিআইকে তুলোধোনা করেন। বিচারপতির মন্তব্য, 'দিনের পর দিন ট্রায়াল চলছে। একদিকে অভিযুক্তরা যেমন জামিন পাচ্ছেন না, অন্যদিকে মামলাকারীরাও টাকা ফেরত পাচ্ছেন না। কাউকেই বিচার দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। শুধুমাত্র ধীরগতিতে তদন্তের জন্য।'

প্রসঙ্গত আমানতকারীদের টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য কলকাতা হাইকোর্ট অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি তালুকদারের নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠন করেছিল। সেই কমিটির মেয়াদ আরও ছয় মাস বৃদ্ধি করেছে আদালত। একইসঙ্গে, কেন্দ্রের অতিরিক্ত সলিসিটর জেনারেলকে এমপিএস সহ যাবতীয় চিটফান্ড সংক্রান্ত মামলার স্টেটাস রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। চিটফান্ড সংক্রান্ত মামলায় এর আগে কলকাতা হাইকোর্ট রাজ্য পুলিশের ডিজিকে সশরীরে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল। সে ক্ষেত্রে তিনি আদালতের কাছে দ্রুত তদন্ত শেষ করার আশ্বাস দিয়েছিলেন।

বন্ধ করুন