বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বড় নির্দেশ অভিজিৎ গাঙ্গুলির, SIT থেকে বাদ পড়লেন CBI-এর ২ আধিকারিক

বড় নির্দেশ অভিজিৎ গাঙ্গুলির, SIT থেকে বাদ পড়লেন CBI-এর ২ আধিকারিক

বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

গ্রুপ ডি নিয়োগ দুর্নীতির তদন্তে উঠে আসে মোট ৫৪২ জনের বেআইনি নিয়োগ হয়েছে। ৬ মাস আগে এই ঘটনায় বেআইনিভাবে চাকরি পাওয়া প্রত্যেককে জেরা করার নির্দেশ দেন বিচারপতি। ৫ মাস আগে গত ১৭ জুন এজন্য সিট গঠন করেন তিনি। কিন্তু তার পর এতদিনে মাত্র ১৬ জনকে জেরা করেছে সিবিআই।

আগেই হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন, তাতেও কাজ না হওয়ায় গ্রুপ ডি নিয়োগ দুর্নীতি তদন্তে সিবিআইয়ের সিট পুনর্গঠন করলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। ২ জন আধিকারিককে তদন্তের দায়িত্ব থেকে অব্যহতি দিয়ে দায়িত্ব দিলেন অন্য ৪ জনকে। সঙ্গে প্রধান তদন্তকারী আধিকারিক হিসাবে নিয়োগ করলেন CBI-এর একজন DIG-কে। বিচারপতির আশা, এতে তদন্তের গতি বাড়বে।

গ্রুপ ডি নিয়োগ দুর্নীতির তদন্তে উঠে আসে মোট ৫৪২ জনের বেআইনি নিয়োগ হয়েছে। ৬ মাস আগে এই ঘটনায় বেআইনিভাবে চাকরি পাওয়া প্রত্যেককে জেরা করার নির্দেশ দেন বিচারপতি। ৫ মাস আগে গত ১৭ জুন এজন্য সিট গঠন করেন তিনি। কিন্তু তার পর এতদিনে মাত্র ১৬ জনকে জেরা করেছে সিবিআই। যা মোট অবৈধ নিয়োগের ৫ শতাংশেরও কম।

এতেই অসন্তোষ প্রকাশ করে বুধবার নতুন করে সিট গঠন করেন বিচারপতি। তদন্তের দায়িত্ব থেকে বাদ দেন ডেপুটি সুপার কেসি রিশিনামালো ও ইন্সপেক্টর ইমরান আশিককে। বদলে বিশ্বনাথ চক্রবর্তী, অংশুমান সাহা, প্রদীপ ত্রিপাঠী, ওয়াসিম আক্রম খানকে সিটে সংযুক্ত করেন তিনি।

একই সঙ্গে প্রধান তদন্তকারী অফিসারের দায়িত্ব দেওয়ার জন্য সিবিআইয়ের কাছে ৩ জন ডিআইজি পদমর্যাদার আধিকারিকের নাম চান তিনি। কিন্তু সিবিআইয়ের তরফে জানানো হয় কলকাতায় ডিআইজি পদমর্যাদার কোনও আধিকারিক কর্মরত নেই। তখন অখিলেশ সিং নামে এক আধিকারিককে প্রধান তদন্তকারী আধিকারিকের ভার দেন বিচারপতি। অখিলেশ সিং যেখানেই থাকুন তাঁকে ৭ দিনের মধ্যে কলকাতায় বদলি করার নির্দেশ দেন। এমনকী আদালতের অনুমতি ছাড়া ওই আধিকারিককে বদলি করা যাবে না বলেও জানান। এখন দেখার আদালতের তৎপরতায় সিবিআয়ের তৎপরতা বাড়ে কি না।

 

বন্ধ করুন