বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > দুর্নীতিগ্রস্ত পরেশ অধিকারীকে মন্ত্রিসভা থেকে অপসারণের দাবিতে হাইকোর্টে মামলা
শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশচন্দ্র অধিকারীকে অপসারণের দাবিতে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করল বিজেপি

দুর্নীতিগ্রস্ত পরেশ অধিকারীকে মন্ত্রিসভা থেকে অপসারণের দাবিতে হাইকোর্টে মামলা

  • পরেশ অধিকারীকে অপসারণের জন্য সরকারের ওপরে চাপ তৈরি করতেই এই মামলা। শেষ পর্যন্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দুর্নীতিগ্রস্ত এই মন্ত্রীকে সরিয়ে দিলে বৃহস্পতিবার মামলাটি প্রাসঙ্গিকতা হারাবে।

মন্ত্রিসভায় রদবদলের কয়েক ঘণ্টা আগে রাজ্যের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশচন্দ্র অধিকারীকে অপসারণের দাবিতে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করল বিজেপি। বুধবার এই মামলাটি দায়ের করেন বিজেপি নেতা প্রদীপ্ত অর্জুন। বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে মামলাটির শুনানি হতে পারে।

বিজেপির তরফে দাবি করা হয়েছে, রাজ্যের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশচন্দ্র অধিকারী আপদমস্তক দুর্নীতিতে জড়িত। মন্ত্রিত্বের প্রভাব খাটিয়ে তিনি মেয়ে অঙ্কিতা অধিকারীকে বেআইনিভাবে সরকারি বিদ্যালয়ে শিক্ষিকার চাকরি পাইয়ে দিয়েছিলেন। যে কারণে আদালত তাঁকে বরখাস্ত করে যোগ্য প্রার্থী ববিতা সরকারকে নিয়োগের নির্দেশ দিয়েছে। সঙ্গে মন্ত্রীর মেয়েকে চাকরির বেতনবাবদ প্রাপ্ত টাকাও ফেরত দিতে নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি। এর পর মন্ত্রিত্বে থাকার কোনও নৈতিক অধিকার নেই পরেশবাবুর। এত বড় দুর্নীতি প্রমাণিত হলেও তাঁকে এখনো মন্ত্রিসভা থেকে অপসারণ করেননি মুখ্যমন্ত্রী। তাই এই দুর্নীতিগ্রস্ত মন্ত্রীকে অপসারণ করুক আদালত।

বাড়িতে পুজো করতে এসে তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা‌র অভিযোগ, বিষ্ণুপুরে গ্রেফতার

কলকাতা হাইকোর্ট সূত্রে জানা গিয়েছে, মামলাটি গ্রহণ করেছে আদালত। বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে মামলার শুনানি হতে পারে।

ওদিকে বুধবার বিকেলেই রাজ্য মন্ত্রিসভায় হতে চলেছে রদবদল। সরকারের অলিন্দ থেকে খবর, মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়তে চলেছেন পরেশবাবু। এই নিয়ে তাঁর প্রতিক্রিয়াও ইতিমধ্যে এসে পৌঁছেছে। প্রবীণ এই রাজনীতিক তাঁর মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়ার খবরে জানিয়েছেন, ‘হলে মেনে নেব।’

বলে রাখি, গত এপ্রিলে কলকাতা হাইকোর্টে পরেশবাবুর মেয়ে অঙ্কিতা চাকরি থেকে বরখাস্ত করার নির্দেশ দেয়। বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় তাঁর নির্দেশে বেতনবাবদ প্রাপ্ত প্রায় ১৭ লক্ষ টাকা ফেরত দিতে নির্দেশ দেন অঙ্কিতাকে। মামলার শুনানিতে উঠে আসে, অবৈধভাবে ওয়েটিং লিস্টে রদবদল করে নিয়োগ করা হয়েছে অর্পিতাকে। পরেশবাবুর ফরওয়ার্ড ব্লক থেকে তৃণমূলে যোগদানের কয়েকদিনের মধ্যে ববিতা সরকার নামে এক প্রার্থীর জায়গায় নিয়োগ পান তাঁর মেয়ে। এমনকী তাঁকে নিয়োগ দিতে বাড়ির কাছের স্কুলে শূন্যপদ তৈরি করেছে শিক্ষা দফতর। মেখলিগঞ্জ ইন্দিরা উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় নামে ওই স্কুলের ছাত্রী ছিলেন অঙ্কিতা নিজে। আদালতের নির্দেশে ইতিমধ্যে শিক্ষিকা হিসাবে ওই স্কুলে যোগদান করেছেন ববিতা।

ঝাড়খণ্ড MLA মামলায় CID বনাম দিল্লি পুলিশ! রাজধানী যাচ্ছেন বাংলার আধিকারিকরা

আইনজ্ঞদের মতে, পরেশ অধিকারীকে অপসারণের জন্য সরকারের ওপরে চাপ তৈরি করতেই এই মামলা। শেষ পর্যন্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দুর্নীতিগ্রস্ত এই মন্ত্রীকে সরিয়ে দিলে বৃহস্পতিবার মামলাটি প্রাসঙ্গিকতা হারাবে। তাই আপাতত সবার নজর রাজ্য মন্ত্রিসভার রদবদলের দিকে।

 

বন্ধ করুন