বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > স্পুটনিকের ট্রায়ালে অংশ নিলেও মেনেলি শংসাপত্র! হাইকোর্টে মামলা স্বেচ্ছাসেবকদের
স্পুটনিক-ভি টিকা (ফাইল ছবি)
স্পুটনিক-ভি টিকা (ফাইল ছবি)

স্পুটনিকের ট্রায়ালে অংশ নিলেও মেনেলি শংসাপত্র! হাইকোর্টে মামলা স্বেচ্ছাসেবকদের

  • গত বছরের ডিসেম্বর মাস থেকে চলতি বছরের জুলাই মাস পর্যন্ত স্পুটনিকের ট্রায়াল চলে ভারতে। কলকাতায় মোট ৫০ জনকে পরীক্ষামূলকভাবে এই টিকা দেওয়া হয়েছিল।

রাশিয়ার করোনা রোধিক টিকা স্পুটনিক-ভি-র ট্রায়াল হয়েছিল কলকাতায়। এখানে মোট ৫০ জনকে পরীক্ষামূলকভাবে এই টিকা দেওয়া হয়েছিল। তারপর এই টিকা অনুমোদন পায়। সাধারণ মানুষকে স্পুটনিক টিকা দেওয়া শুরু হয়। যাঁরা যাঁরা টিকা নিয়েছেন তাঁরা সার্টিফিকেটও পেয়েছেন। তবে স্পুটনিকের ট্রায়ালে অংশ নেওয়া স্বেচ্ছাসেবকরা টিকার সার্টিফিকেট পাননি এখনও। আর এই কারণেই হাইকোর্টের দ্বারস্থ তাঁরা।

ট্রায়ালে অংশ নিলেও সার্টিফিকেট না পাওয়ায় কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা করলেন বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক শুভ্রজ্যোতি ভৌমিক। অভিযোগ, স্পুটনিকের ট্রায়ালে যাঁরা অংশ নিয়েছিলেন তাঁদের কাউকেই এখনও সার্টিফিকেট দেওয়া হয়নি। ফলে তাঁরা বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। কেন তাঁরা এখনও সার্টিফিকেট পাননি এবং কবে তাঁদের সার্টিফিকেট দেওয়া হবে, গোটা বিষয়টাই এই স্বেচ্ছাসেবকদের কাছে ধোঁয়াশার মতো। আর তাই এই নিয়ে উচ্চ আদালতে মামলা করা হয়েছে। প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তবের ডিভিশন বেঞ্চে আগামী সপ্তাহে মামলাটি শুনানির সম্ভাবনা রয়েছে।

গত বছরের ডিসেম্বর মাস থেকে চলতি বছরের জুলাই মাস পর্যন্ত স্পুটনিকের ট্রায়াল চলে ভারতে। পরীক্ষায় সফল হওয়ার পর সর্বসাধারনের জন্য এই ভ্যাকসিনের ছাড়পত্র দেওয়া হয়। এরপর কোউইন অ্যাপের মাধ্যমেই এই টিকা নিতে স্লট বুক করতে পারছিলেন ইচ্ছুক মানুষজন। টিকা নেওয়া হলে সেই সংক্রান্ত সার্টিফিকেটও মিলছে। তবে যাঁদের উপর সফল পরীক্ষণের মাধ্যমে এই টিকা অনুমোদন পেল, তাঁরাই এই টিকার সার্টিফিকেট পেলেন না।

বন্ধ করুন