বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > রাজ্য পার্টি কতটা এগিয়েছে?‌ নয়াদিল্লিতে সুকান্ত মজুমদারকে জরুরি তলব নেতৃত্বের
সুকান্ত মজুমদার। ( ছবি, সৌজন্য টুইটার @DrSukantaMajum1)

রাজ্য পার্টি কতটা এগিয়েছে?‌ নয়াদিল্লিতে সুকান্ত মজুমদারকে জরুরি তলব নেতৃত্বের

  • জেলায় জেলায় সংগঠন ভেঙে পড়ার কারণ জানতে চাইতে পারেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। যে রিপোর্ট সেখানে পৌঁছেছে তার সঙ্গে বাস্তবের মিল নেই কেন?‌ তাও জানতে চাইতে পারেন তাঁরা। এখন বিজেপির অন্দরে চরমে উঠেছে গোষ্ঠীকোন্দল। বঙ্গ–বিজেপি আদি–নব্যে আড়াআড়িভাবে ভাগ হয়ে পড়েছে। তা নিয়েও কথা হতে পারে।

সম্প্রতি বাংলা সফর সেরে ফিরেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নড্ডা। এমনকী তারপর নয়াদিল্লি গিয়েছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার এবং সাধারণ সম্পাদক(সংগঠন) অমিতাভ চক্রবর্তী। কিন্তু এবার জরুরি তলব করে সুকান্তকে নয়াদিল্লিতে ডেকে পাঠানো হল। সূত্রের খবর, রবিবার রাতে বিজেপির রাজ্য সভাপতির কাছে ফোন আসে। সোমবারই নয়াদিল্লি পৌঁছতে নির্দেশ দেওয়া হয় তাঁকে। তাই নয়াদিল্লি গেলেন সুকান্ত মজুমদার।

কেন এই জরুরি তলব?‌ সূত্রের খবর, যে হোমওয়ার্ক দেওয়া হয়েছিল সংগঠন নিয়ে তা খতিয়ে দেখতেই এই জরুরি তলব। একইসঙ্গে নিজের স্ত্রীকে বদলির জন্য তৃণমূল কংগ্রেস সরকারের সহায়তা নিয়েছেন সুকান্ত বলে যে অভিযোগ উঠেছে তা কতটা সত্য জানতে চাওয়া হবে। একইসঙ্গে ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি এখন থেকেই কিভাবে নিতে হবে তার নির্দেশও দেওয়া হবে। বিজেপি।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ বিজেপি সূত্রে খবর, জেলায় জেলায় সংগঠন ভেঙে পড়ার কারণ জানতে চাইতে পারেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। যে রিপোর্ট সেখানে পৌঁছেছে তার সঙ্গে বাস্তবের মিল নেই কেন?‌ তাও জানতে চাইতে পারেন তাঁরা। এখন বিজেপির অন্দরে চরমে উঠেছে গোষ্ঠীকোন্দল। বঙ্গ–বিজেপি আদি–নব্যে আড়াআড়িভাবে ভাগ হয়ে পড়েছে। তা নিয়েও কথা হতে পারে।

উল্লেখ্য, বঙ্গ–বিজেপির নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে জেপি নড্ডা বলেছিলেন, ‘‌মানুষের সঙ্গে থাকতে হবে। কাজে লেগে থাকতে হবে। আকাশ থেকে কেউ এসে জিতিয়ে দেবে না।’ তারপর কতটা এগিয়েছে রাজ্য পার্টি সেটা দেখে নিতেই এই জরুরি তলব বলে মনে করা হচ্ছে। যদিও এই নিয়ে সংবাদমাধ্যনে কিছু জানাননি সুকান্ত মজুমদার।

বন্ধ করুন