বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > নিশীথ প্রামাণিকের নাগরিকত্ত্ব নিয়ে উঠল প্রশ্ন, ব্রাত্য বসুর টুইটে তোলপাড়
পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু। ফাইল ছবি
পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু। ফাইল ছবি

নিশীথ প্রামাণিকের নাগরিকত্ত্ব নিয়ে উঠল প্রশ্ন, ব্রাত্য বসুর টুইটে তোলপাড়

  • এবার সেই অভিযোগকে বাড়তি মাত্রা দিলেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র ব্রাত্য বসু।

সদ্য কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর তকমা পেয়েছেন। একেবারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে গিয়ে বসেছেন। কিন্তু তাঁরই নাগরিকত্ত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠে গেল। কয়েকদিন আগে প্রশ্নটা প্রথম সামনে এনেছিল কংগ্রেস। আর যাঁর বিরুদ্ধে আনা হয়েছিল তিনি খোদ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিক। বাংলা থেকে জয়ী বিজেপি সাংসদ বাংলাদেশের নাগরিক বলে দাবি করে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছিলেন অসম প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি তথা রাজ্যসভার সাংসদ রিপুণ বোরা। এবার সেই অভিযোগকে বাড়তি মাত্রা দিলেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র ব্রাত্য বসু।

এদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে লেখা রিপুণ বোরার চিঠিটি টুইটারে শেয়ার করেন ব্রাত্য বসু। আর তার সঙ্গে লেখেন, ‘‌রাজ্যসভার সাংসদ রিপুণ বোরা সঠিক প্রশ্নই তুলেছেন। বহু সংবাদমাধ্যমে দেখা গিয়েছে যে, নিশীথ প্রামাণিক বাংলাদেশের নাগরিক। এমন লোককে মন্ত্রী করার আগে কি কিছুই খতিয়ে দেখা হয়নি? ভুলে গেলে চলবে না এই নিশীথের বিরুদ্ধে একাধিক অপরাধমূলক মামলা চলছে। লজ্জাজনক।’‌

ব্রাত্য বসুর মতো শিক্ষিত নেতা তথা রাজ্যের মন্ত্রীর পক্ষ থেকে ওঠা অভিযোগ নিয়ে শোরঘোল পড়ে গিয়েছে। রিপুণ বোরার যে চিঠিটি ব্রাত্য শেয়ার করেছেন, তাতে সত্যিই গুরুতর অভিযোগ রয়েছে। অসমের ওই কংগ্রেস সাংসদ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট তুলে ধরেছেন। তারপর দাবি করেছেন, নিশীথ প্রামাণিক আসলে বাংলাদেশের পলাশবাড়ির হরিনাথপুরের বাসিন্দা। এমনকী নিশীথ প্রামাণিক ভারতে এসেছিলেন কম্পিউটার কোর্স করার জন্য। তারপর এখানেই থেকে যান। এখানে স্তায়ীভাবে থাকতে গিয়ে প্রথমে তৃণমূল কংগ্রেসে এবং পরে বিজেপিতে যোগ দিয়ে সাংসদ হন।

এখানেই শেষ নয়, রিপুণ বোরার দাবি, নিশীথ যে নথিপত্র দেখিয়ে নিজেকে কোচবিহারের বাসিন্দা বলে দাবি করেছেন, সেইসব নথিপত্র আসলে ভুয়ো। এমনকী জালিয়াতি করে তৈরি করা হয়েছে। কংগ্রেস সাংসদের সেই অভিযোগ এবার শোনা গেল তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্রের টুইটে। যা নিয়ে রাজ্য–রাজনীতিতে জোর চর্চা শুরু হয়েছে। যদিও এই বিষয়ে নিশীথের কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

উল্লেখ্য, নরেন্দ্র মোদী মন্ত্রিসভার সর্বকনিষ্ঠ মন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিককে নিয়ে বিরোধীদের অভিযোগের শেষ নেই। আগে তাঁর শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। তিনি মাধ্যমিক পাশ নাকি বিসিএ উত্তীর্ণ তা নিয়ে বিস্তর জলঘোলা হয়েছে। এবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে একগুচ্ছ ফৌজদারি মামলা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে রাজ্যের শাসকদল।

বন্ধ করুন