বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ওড়িশা-অন্ধ্রকে ৬০০ কোটি, বাংলাকে ৪০০ কোটি, ‘সায়েন্স’-এর কম জ্ঞান আছে : মমতা
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবি সৌজন্য এএনআই)

ওড়িশা-অন্ধ্রকে ৬০০ কোটি, বাংলাকে ৪০০ কোটি, ‘সায়েন্স’-এর কম জ্ঞান আছে : মমতা

  • মমতা দাবি করেন, কেন্দ্র যে টাকা দিয়েছে, তা আদতে রাজ্যের প্রাপ্য থেকেই আগাম হিসেবে দিয়েছে। বাড়তি কোনও সাহায্য করেনি।

‘পলিটিকাল সায়েন্সর’ বিষয়ে জ্ঞান আছে। কিন্তু অমিত শাহের ব্যাখ্যা দেওয়া ‘সায়েন্স’ নিয়ে তাঁর বেশি জ্ঞান নেই। ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’ মোকাবিলায় বাংলাকে তুলনামূলক কম টাকা দেওয়া নিয়ে এভাবেই ক্ষোভ ঝরে পড়ল মুখ্যমন্ত্রীর গলা থেকে।

আগামী বুধবার দুপুরের দিকে উপকূলে আছড়ে পড়তে চলেছে ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’। সেইসময় ঝড়ের গতিবেগ ঘণ্টায় ১৫৫-১৬৫ কিলোমিটার থাকবে। কখনও কখনও তা ঘণ্টায় ১৮৫ কিলোমিটারে পৌঁছে যাবে। তাণ্ডবের আশঙ্কায় ইতিমধ্যে একাধিক পদক্ষেপ করেছে পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িশার মতো রাজ্য। পুরো প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে সোমবার পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িশা ও অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

বৈঠকের পর নবান্নে মমতা দাবি করেন, ওড়িশা ও অন্ধ্রপ্রদেশকে ৬০০ কোটি টাকার মতো দিয়েছে কেন্দ্র। বাংলার কপালে জুটেছে মাত্র ৪০০ কোটি টাকা। তা নিয়ে কিছুটা ক্ষোভপ্রকাশ করেন মমতা। তবে মুখ্যমন্ত্রী জানান, ওড়িশা এবং অন্ধ্রপ্রদেশকে বেশি অর্থ বরাদ্দ করা হওয়ায় আপত্তি নেই। কারণ দুই রাজ্যই হল বাংলার ‘বোন’। কিন্তু জনসংখ্যা, আয়তনের উপর ভিত্তি করে টাকার অঙ্ক নির্ধারণ করা উচিত বলে দাবি করেন মমতা।বিষয়টি নিয়ে শাহকে প্রশ্নও করেন। জানতে চান, 'আপনি কি উত্তরপ্রদেশের সঙ্গে পুদুচেরির তুলনা করতে পারবেন? দেশে অনেক বড় রাজ্য আছে, অনেক ছোটো রাজ্য আছে, অনেক মাঝারি মাপের রাজ্য আছে। '

কিন্তু সেই প্রশ্নের জবাবে ‘সায়েন্স’ তুলে ধরেন শাহ। মমতার কথায়, ‘(শাহ বলেন) মমতাজি আমরা পরে কথা বলব। এটা বৈজ্ঞানিক উপায়ে হয়। আমি এটার বিষয়ে আর কিছু বলিনি। আমরা পলিটিকাল সায়েন্সের বিষয়ে কিছুটা জ্ঞান আছে। কিন্তু এই সায়েন্সের বিষয়ে জ্ঞান কম আছে।’ সঙ্গে দাবি করেন, কেন্দ্র যে টাকা দিয়েছে, তা আদতে রাজ্যের প্রাপ্য থেকেই আগাম হিসেবে দিয়েছে। বাড়তি কোনও সাহায্য করেনি।

বন্ধ করুন