বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > NRS Hospital: মায়ের কানের দুল খেয়ে ফেলেছিল ১০ মাসের শিশু, চিকিৎসকদের তৎপরতায় বাঁচল প্রাণ
এনআরএস হাসপাতাল (ছবি সৌজন্যে সোশ্যাল মিডিয়া)

NRS Hospital: মায়ের কানের দুল খেয়ে ফেলেছিল ১০ মাসের শিশু, চিকিৎসকদের তৎপরতায় বাঁচল প্রাণ

  • হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, গত শুক্রবার রাতে বালিশের তলায় কানের দুল খুলে রেখে দিয়েছিলেন শিশুর মা। পরদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে তিনি একটি কানের দুল কিছুতেই খুঁজে পাচ্ছিলেন না। অন্যদিকে, সকলে ঘুম থেকে ওঠার পরে শিশুটি কেঁদেই যাচ্ছিল।

মায়ের কানের দুল গিলে ফেলেছিল দশ মাসের শিশু। সেই দুল আটকে গিয়েছিল খাদ্যনালীতে। ঘটে যেতে পারতো বড়সড় বিপদ। অবশেষে এনআরএস হাসপাতালে চিকিৎসকের তৎপরতায় তা বের করা সম্ভব হল। বর্তমানে নদিয়ার ১০ মাসের ওই কন্যা সন্তান সুস্থ রয়েছেন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, গত শুক্রবার রাতে বালিশের তলায় কানের দুল খুলে রেখে দিয়েছিলেন শিশুর মা। পরদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে তিনি একটি কানের দুল কিছুতেই খুঁজে পাচ্ছিলেন না। অন্যদিকে, সকলে ঘুম থেকে ওঠার পরে শিশুটি কেঁদেই যাচ্ছিল। প্রথমে দুলটি কেউ চুরি করেছে বলে মায়ের সন্দেহ হলেও পরে শিশুর কান্না দেখে তার সন্দেহ হয় হয়তো দুলটি সে গিলে ফেলেছে। তখন দেরি না করে শিশুকে তড়িঘড়ি এনআরএস হাসপাতালে নিয়ে যায় পরিবারের সদস্যরা। সেখানে এনআরএস হাসপাতালের নাক কান গলা বিভাগে নিয়ে যান তারা। শিশুর মা চিকিৎসককে সমস্যার কথা জানান। তিনি নিজের সন্দেহের কথা বলেন চিকিৎসকদের। এরপরেই চিকিৎসকরা এক্স রে করে দেখেন যে শিশুর খাদ্যনালীতে কিছু একটা আটকে রয়েছে। যা দেখতে কানের দুলের মতোই। এর পরেই চিকিৎসকরা সে বিষয়ে নিশ্চিত হন।

দেরি না করে শিশুটির খাদ্যনালীতে পাইপ ঢুকিয়ে কানের দুলটি বের করেন চিকিৎসকরা এই পদ্ধতিকে ইসোফ্যাগোস্কোপি বলা হয়। হাসপাতালের ইএনটি বিভাগের প্রধান চিকিৎসক সীমান্ত দত্তের নেতৃত্বে বার করা হয়। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, শিশুদের খাদ্যনালী খুবই পাতলা। কিন্তু, কানের দুলটি সরু হওয়ায় অত্যন্ত সূক্ষ্মভাবে তা বের করা হয়েছে। বর্তমানে শিশুটি সুস্থ হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

বন্ধ করুন