বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মাস পয়লাই বীভৎস ছবি ফুটে উঠবে সিগারেটের প্যাকেটে, ধূমপান কমাতে উদ্যোগ
ধূমপান (ছবিটি প্রতীকী)

মাস পয়লাই বীভৎস ছবি ফুটে উঠবে সিগারেটের প্যাকেটে, ধূমপান কমাতে উদ্যোগ

  • সিগারেটের প্যাকেটে লেখা থাকে—ধূমপান ক্যানসারের কারণ। এই লেখার পাশাপাশি মুখে বীভৎস ঘা–এর ছবি ছাপা হয়েছিল।

রাত পোহালেই বছর শেষের মাস—ডিসেম্বর। আর এদিন থেকেই ভয়াবহ আকার ধারণ করতে চলেছে সিগারেটের প্যাকেট। সেখানে আরও ভয়াবহ ছবি বসতে চলেছে বলে খবর। ধূমপায়ীদের মূলস্রোতে আনতেই এই পদক্ষেপ করা হচ্ছে। এখন যে প্যাকেট রয়েছে তার উপরের ছবি হল, মুখ জুড়ে ভয়ানক ক্ষত। ধূমপান ক্যানসারের কারণ বোঝাতেই সতর্কীকরণ করা হয়েছিল। তাতে কতটা কাজ হয়েছে তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। কারণ এখন পুরুষদের পাশাপাশি মহিলারাও ধূমপান করছেন দেদার। তাই ১ ডিসেম্বর থেকেই আরও ভয়াবহ হবে সিগারেটের প্যাকেটের উপরের ছবি।

সিগারেটের প্যাকেটে লেখা থাকে—ধূমপান ক্যানসারের কারণ। এই লেখার পাশাপাশি মুখে বীভৎস ঘা–এর ছবি ছাপা হয়েছিল। আবার সেখানে লাল রং করা হয়েছিল। যাতে ক্যানসারের মতো মারণ রোগের ভয় পান ধূমপায়ীরা। প্যাকেটের ৫০ শতাংশ অংশ জুড়ে এই ধরনের ছবি রাখা বাধ্যতামূলক হয়েছে। ২০১৮ সালের পর ২০২০ থেকে ঠিক হয় সিগারেট–বিড়ির প্যাকেটের ৮৫ শতাংশ অংশে থাকবে ক্যানসার আক্রান্ত মুখমণ্ডলের ছবি। কেন্দ্রীয় সরকারের দাবি, এভাবেই ধূমপায়ীর সংখ্যা কমছে।

তবে এই ছবি বহুদিন হয়ে গিয়েছে। এখন সেটা দেখা প্রায় অভ্যাসে পরিণত হয়েছে ধূমপায়ীদের। তাই নতুন ছবির ভাবনা এসেছে। তবে সেটা কেমন ছবি হবে তা এখনও প্রকাশ্যে আসেনি। এখনকার ছবির মেয়াদ ফুরোচ্ছে ৩০ নভেম্বর। আর ১ ডিসেম্বর যেসব সিগারেটের প্যাকেট কারখানা থেকে বেরোবে সেগুলির উপর থাকবে মুখে ভয়াবহ ছবি।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে সিগারেট অ্যান্ড টোবাকো প্রোডাক্টস (প্যাকেজিং অ্যান্ড লেবেলিং) রুলস পরিবর্তন করা হয়েছিল। তখন থেকেই ভয়াবহ ছবি ফুটে উঠেছিল। এবার তা আরও ভয়াবহ হয়ে উঠতে চলেছে বলে খবর। তবে কেন্দ্রীয় সরকারের দাবি, এই উদ্যোগের ফলে ৬২ শতাংশ ধূমপায়ী এবং ৫৪ শতাংশ বিড়ি সেবনকারী ধূমপান ছাড়ার আগ্রহ দেখিয়েছেন।

বন্ধ করুন