বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > প্রাক্তনকে সম্মান বর্তমানের, জ্যোতি বসু মেমোরিয়ালের জন্য জমি বরাদ্দ মমতার‌
প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে সম্মান দিলেন বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী।

প্রাক্তনকে সম্মান বর্তমানের, জ্যোতি বসু মেমোরিয়ালের জন্য জমি বরাদ্দ মমতার‌

  • সিপিআইএমের অনুরোধে সাড়া দিয়ে রাজারহাটে নির্মীয়মাণ নয়া হাইকোর্টের কাছেই ৫ একর জমি এই কাজের জন্য অনুমোদন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এটি কেনা হয়েছে ‘জ্যোতি বসু সেন্টার ফর সোশ্যাল স্টাডিজ অ্যান্ড রিসার্চে’র নামে।

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে সম্মান দিলেন বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী। হ্যাঁ, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসুর স্মারক মেমোরিয়ালের জন্য জমি বরাদ্দ করলেন বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে এই জন্য জমি চেয়েছিল সিপিআইএম। বিরোধী হলেও তাঁদের অনুরোধ ফেলেননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই রাজারহাটে এবার শুরু হতে চলেছে প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসু মেমোরিয়ালের কাজ। আগামী ৮ জুলাই, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর জন্মদিনেই প্রস্তাবিত মেমোরিয়ালের কাজের খসড়া সম্পূর্ণ করতে চাইছে কমিউনিস্ট পার্টি।

বিষয়টি ঠিক কী ঘটছে?‌ নবান্ন সূত্রে খবর, সিপিআইএমের অনুরোধে সাড়া দিয়ে রাজারহাটে নির্মীয়মাণ নয়া হাইকোর্টের কাছেই ৫ একর জমি এই কাজের জন্য অনুমোদন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এটি কেনা হয়েছে ‘জ্যোতি বসু সেন্টার ফর সোশ্যাল স্টাডিজ অ্যান্ড রিসার্চে’র নামে। এই ট্রাস্টের সচিব রবীন দেব। তবে বিমান বসু–সহ অন্যান্য শীর্ষনেতারাও আছেন।

কী হবে এখানের মেমোরিয়ালে?‌ সিপিআইএম সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই এই জমিতে বৃক্ষরোপণ করা হয়েছে। আর এখানে থাকবে জ্যোতি বসু এবং বামপন্থী আন্দোলন সংক্রান্ত সংগ্রহশালা, গ্রন্থাগার, প্রদর্শনশালা, অডিটোরিয়াম। এমনকী অতিথিদের থাকার ব্যবস্থাও থাকছে। দেশ–বিদেশ থেকে যাঁরা আসবেন তাঁদের আতিথেওতার ব্যবস্থাও রাখা হচ্ছে।

কেন এমন উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে?‌ আলিমুদ্দিন সূত্রে খবর, নতুন প্রজন্ম বাম–আন্দোলন সম্পর্কে অনেক কিছুই জানেন না। তাই তাঁদের জ্ঞানের জন্যই এখানে ব্যবস্থা করা হচ্ছে। যাঁরা বাম আন্দোলন নিয়ে গবেষণা করতে চান, তাঁদের জন্যও ব্যবস্থা রাখা থাকবে। দেশ–বিদেশের কমিউনিস্ট নেতারা এখানে এসে জ্যোতি বসু এবং বাম আন্দোলন সম্পর্কে জানতে পারবেন। ভাব–বিনিময়, আন্দোলনের তথ্য আদানপ্রদান হবে।

বন্ধ করুন