বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Mamata Banerjee: ‘‌এত অবহেলা কেন?’‌ বাগুইআটি কাণ্ড নিয়ে নবান্নে ক্ষোভপ্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী
নবান্নে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Mamata Banerjee: ‘‌এত অবহেলা কেন?’‌ বাগুইআটি কাণ্ড নিয়ে নবান্নে ক্ষোভপ্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী

  • বাগুইআটি কাণ্ড নিয়ে বিরোধীরা সমালোচনা করতে শুরু করেছেন। আজ থানা পর্যন্ত ঘেরাও করেছেন তাঁরা। এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই বাগুইআটি থানার আইসি কল্লোল ঘোষকে ক্লোজ করা হয়েছে। আর তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সিআইডি–কে৷ মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠকের আগেই রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম৷

বাগুইআটি জোড়া খুন কাণ্ড নিয়ে নবান্নের রিভিউ বৈঠকের শুরুতেই উষ্মাপ্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকী পুলিশের কাজ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্য পুলিশের ডিজি, এডিজি আইনশৃঙ্খলা সব পুলিশের আধিকারিকদের সামনে ক্ষোভ প্রকাশ। ‘‌আইসিকে অবিলম্বে সাসপেন্ড করা উচিত তোমাদের’‌। এমনই মন্তব্য করে মুখ্যমন্ত্রী। এই মন্তব্যের পর পুলিশের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা একে অন্যের দিকে তাকিয়ে থাকেন।

ঠিক কী বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী?‌ এদিন তিনি ঘটনাটি নিয়ে বৈঠকে ক্ষোভ উগড়ে দেন। তিনি বাগুইআটির ঘটনা নিয়ে মন্তব্য করেছেন। এমনকী মুখ্যমন্ত্রীর প্রশ্নের মুখে পড়েন বিধাননগরের পুলিশ সুপারও। ‘‌এত অবহেলা কেন?’‌ পুলিশ সুপার সুপ্রতিম সরকারকে এই প্রশ্নই করেন মুখ্যমন্ত্রী। পর্যালোচনা বৈঠকের শুরুতেই বাগুইআটি কাণ্ড নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্য থেকে স্পষ্ট হয়ে যায়, বিষয়টিকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিচ্ছে রাজ্য সরকার। দুই ছাত্রের খুনের ঘটনায় তৎপর রাজ্য সরকার। তাই সিআইডিকে তদন্তভার দেওয়া হয়েছে।

আর কী ঘটেছে এই ঘটনায়?‌ বাগুইআটি কাণ্ড নিয়ে বিরোধীরা সমালোচনা করতে শুরু করেছেন। আজ থানা পর্যন্ত ঘেরাও করেছেন তাঁরা। এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই বাগুইআটি থানার আইসি কল্লোল ঘোষকে ক্লোজ করা হয়েছে। আর তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সিআইডি–কে৷ মুখ্যমন্ত্রীর এই বৈঠকের আগেই নবান্ন থেকে রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম৷ বাগুইআটি কাণ্ডে পুলিশের যে গাফিলতি ছিল, তা কার্যত স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে।

ঠিক কী বলেছেন মেয়র?‌ এই ঘটনা নিয়ে ফিরহাদ হাকিম বলেন, ‘‌দুই ছাত্রের খুনের ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী খুবই ব্যথিত। মুখ্যমন্ত্রী নিজে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করার জন্য রাজ্য পুলিশের ডিজি–কে নির্দেশ দিয়েছেন। আজ, বুধবারই বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেটে গোয়েন্দা আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন সিআইডি আধিকারিকরা। তদন্তের শুরুতেই পুলিশের সিআইডির সঙ্গে কথা বলা উচিত ছিল।’‌

বন্ধ করুন