বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌আগামী বছর মুক্ত মনে ঘোরাফেরা করতে পারব’‌, বৃদ্ধাশ্রমে আশা জাগালেন মমতা
নবনীড় বৃদ্ধাশ্রমের আবাসিকদের সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
নবনীড় বৃদ্ধাশ্রমের আবাসিকদের সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

‘‌আগামী বছর মুক্ত মনে ঘোরাফেরা করতে পারব’‌, বৃদ্ধাশ্রমে আশা জাগালেন মমতা

  • প্রত্যেক বছর এখানের আবাসিকদের প্রতিমা দর্শনে নিয়ে যাওয়া হতো।

আজ মহাপঞ্চমী। মানুষ এখন মণ্ডপমুখী। উৎসবে মেতে উঠেছে বাংলার মানুষ। আর বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখা গেল নবনীড় বৃদ্ধাশ্রমের আবাসিকদের সঙ্গে গল্প করতে। মানুষের সঙ্গে থাকতেই তিনি ভালবাসেন। তাই তো তিনি জননেত্রী। প্রত্যেক বছর দুর্গাপুজোর প্রাক্কালে তিনি এখানে আসেন। এবারও সেই নিয়মে বদল ঘটেনি।

কী বললেন এখানে এসে?‌ মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, ‘‌আমি যখন যাদবপুরের সাংসদ ছিলাম, তখন থেকেই নবনীড় জায়গার সঙ্গে পরিচিত। এখানের প্রতি আমার একটা টান আছে। মমত্ব আছে। আপনাদের সঙ্গে একবার দেখা হলে খুবই ভালো লাগে। আপনারা যে ছোট পুজোটা করছেন, এই পুজোর মধ্যে দিয়েই দিনগুলি ভালো কাটুক।’‌

প্রত্যেক বছর এখানের আবাসিকদের প্রতিমা দর্শনে নিয়ে যাওয়া হতো। এবার কেন তা হবে না?‌ অনেকের মনে এই প্রশ্ন উঠেছিল। মুখ্যমন্ত্রী সেই প্রশ্নের মুখোমুখি হওয়ার আগেই বললেন, ‘‌আগে তো অষ্টমীর দিন ববি আর বক্সি দা আপনাদের বেড়াতে নিয়ে যেত। করোনাভাইরাসের জন্য অনেক বিধিনিষেধ মানতে হচ্ছে। তা সত্ত্বেও আমরা আশা করছি সংক্রমণ আর বাড়বে না। আগামী বছর আরও মুক্ত মনে আমরা ঘোরাফেরা করতে পারব।’‌

ভবানীপুর উপনির্বাচন সদ্য সমাপ্ত হয়ে ফলাফল প্রকাশ পেয়েছে। তাতে দেখা গিয়েছে রেকর্ড–ভাঙা ভোটে জিতেছেন তিনি। এখানকার আবাসিকরা ভবানীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে পড়ে। তাই তাঁদের ধন্যবাদ জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‌আপনাদের সকলকে প্রণাম জানাই। আপনারা সকলে কষ্ট করে আমাকে ভোট দিতে গিয়েছেন। আমি চিরঋণী আপনাদের কাছে। খুবই কৃতজ্ঞ। চিরকাল আপনাদের এই ভালোবাসা যেন পাই। ভালো থাকবেন। সুস্থ থাকবেন।’‌

বন্ধ করুন