বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌বাংলায় গেলে খুন হয়ে যাবেন বললে আমার গায়ে লাগে’‌, শাহকে জবাব মমতার
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

‘‌বাংলায় গেলে খুন হয়ে যাবেন বললে আমার গায়ে লাগে’‌, শাহকে জবাব মমতার

  • এই পরিস্থিতিতে অমিত শাহের পূর্বের মন্তব্যের জবাব দিলেন খোদ বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একমাস আগে রাজ্যসভায় দাঁড়িয়ে অমিত শাহ বলেছিলেন, ‘‌বাংলায় গেলে খুন হয়ে যেতে পারেন’‌। আজ বাংলাতে এসেই পেয়ে গেলেন তার জবাব।

আজ, বৃহস্পতিবার রাজ্যে এসেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। আর তৃতীয়বার বাংলায় সরকার গড়ে বর্ষপূর্তি করছে তৃণমূল কংগ্রেস। এই পরিস্থিতিতে অমিত শাহের পূর্বের মন্তব্যের জবাব দিলেন খোদ বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একমাস আগে রাজ্যসভায় দাঁড়িয়ে অমিত শাহ বলেছিলেন, ‘‌বাংলায় গেলে খুন হয়ে যেতে পারেন’‌। আজ বাংলাতে এসেই পেয়ে গেলেন তার জবাব।

ঠিক কী জবাব দিলেন মুখ্যমন্ত্রী?‌ এদিন নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে ফায়ার ব্র‌্যান্ড লেডি মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‌যদি কেউ বলেন বাংলায় যেও না, বাংলায় গেলে খুন হয়ে যাবেন, আমার গায়ে লাগে। বাংলা অন্য রাজ্যের থেকে অনেক ভাল। উত্তরপ্রদেশে বিচার চাইতে গেলে পুলিশ নির্যাতিতাকেই অত্যাচার করে। বাংলায় সেটা করার সাহস কারও হবে না। কেউ যদি এমন কাজ করে, তাহলে আমার চেয়ে খারাপ কেউ হবে না। নারী নির্যাতন সমর্থনযোগ্য নয়। এই রাজ্যে পুলিশ রং না দেখে ব্যবস্থা নেয়। উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশে হয় না। পশ্চিমবঙ্গে রাজনৈতিক রং না দেখে শাস্তি দেওয়া হয়।’‌

রাজ্যসভায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কী বলেছিলেন?‌ একমাস আগে রাজ্যসভায় দাঁড়িয়ে অমিত শাহ বলেছিলেন, ‘‌বাংলায় না যাওয়াই ভাল, গেলে খুন হয়ে যেতে পারেন। ফ্যাসিস্ট শব্দটার ব্যাখ্যাই বাংলার সরকার বদলে দিয়েছে। বরং বাংলার সরকার ফ্যাসিস্টের নয়া সংজ্ঞা তৈরি করেছে।’‌ এই মন্তব্য জাতীয় রাজনীতিতে শোরগোল ফেলে দিয়েছিল। যার জবাব দিলেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী।

আর কী বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী?‌ এদিন সরাসরি বিজেপিকে তুলোধনা করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‌আমরা করি লক্ষ্মীর ভাণ্ডার, আর ওরা করে কুৎসার ভাণ্ডার। বাংলাকে এত দুর্বল ভাবার কারণ নেই। বাংলা সবাইকে নিয়ে চলে। বাংলা শিক্ষার আলোকে আলোকিত। সংস্কৃতির আলোকে সুরভিত। সভ্যতার আলোকে বিকশিত। বাংলা মা–বোনেদের আবেগে গর্বিত। বাংলা ছাত্রছাত্রীদের আবেগে সমৃদ্ধ। তাই এই বাংলা বিশ্ববাংলা।’‌

বন্ধ করুন