বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > দেউচা পাঁচামির জমিদাতারা পেতে চলেছেন অর্থ, আজ নবান্ন থেকে দেবেন মুখ্যমন্ত্রী
নবান্ন (‌ছবি সৌজন্য টুইটার)‌

দেউচা পাঁচামির জমিদাতারা পেতে চলেছেন অর্থ, আজ নবান্ন থেকে দেবেন মুখ্যমন্ত্রী

  • আজ নবান্ন সভাঘরের শিল্প বৈঠক থেকেই শুরু হবে দেউচা পাঁচামি প্রকল্পে জমিদাতাদের ক্ষতিপূরণ এবং চাকরির নিয়োগপত্র দেওয়ার কাজ।

পুনর্বাসন প্যাকেজ বৃদ্ধি করার কথা আগেই ঘোষণা করেছিলেন তিনি। জোর করে কোনও কাজ করতে তিনি রাজি নন বলেও জানিয়েছিলেন। এবার আজ, বুধবার বীরভূমের দেউচা পাঁচামি খনি প্রকল্পে শুরু হল জমি প্রদানকারীদের হাতে ক্ষতিপূরণ তুলে দেওয়ার প্রক্রিয়া। বুধবার নবান্নে তাঁদের হাতে ক্ষতিপূরণ ও চাকরির নিয়োগপত্র তুলে দেবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ নবান্ন সভাঘরের শিল্প বৈঠক থেকেই শুরু হবে দেউচা পাঁচামি প্রকল্পে জমিদাতাদের ক্ষতিপূরণ এবং চাকরির নিয়োগপত্র দেওয়ার কাজ।

রাজ্য সরকারের ঘোষিত প্যাকেজ অনুযায়ী, জমিদাতাদের কয়েকজনের হাতে আজ ক্ষতিপূরণের চেক এবং চাকরির নিয়োগপত্র তুলে দেবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই খনি প্রকল্পের বাস্তবায়নকে পাখির চোখ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই উন্নয়নের পরিকল্পনায় কোনও বাধা না যাতে না আসে সেই জন্য বাড়তি সক্রিয় হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

গত সোমবারই জমিদাতাদের জন্য ক্ষতিপূরণের প্যাকেজ আরও বাড়িয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই ঘোষণা অনুযায়ী, প্রতি বিঘা জমির জন্য ১৩ লক্ষ টাকা দিচ্ছে রাজ্য সরকার। তবে পুরসভা নির্বাচন এবং বিধানসভার অধিবেশন মিটিয়ে মার্চের মাঝামাঝি সময়ে সরাসরি দেউচা গিয়ে এলাকার মানুষকে ভরসা দেবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এপ্রিল মাসেই বিশ্ব বঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলন। সেখানে শিল্পপতিদের কাছে বার্তা পৌঁছে দিতে দেউচা পাঁচামিই হবে তুরুপের তাস। কারণ বাংলার উন্নয়নের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর এখন প্রধান লক্ষ্য বিনিয়োগ টানা। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যের শিল্প নিয়ে আলোচনা করতে ওয়েস্টবেঙ্গল ইন্ডাস্ট্রিয়াল প্রমোশন বোর্ডের গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে অংশ নেবেন তিনি। সেই বৈঠকের পর নবান্ন সভাঘরে দেউচা পাঁচামির জমিদাতাদের হাজির করা হবে।

উল্লেখ্য, আগে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল, শুধু কনস্টেবলের চাকরি পাবেন জমিদাতারা। পরে মন্ত্রিসভার বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় ৫ হাজার ছেলে–মেয়ে হোমগার্ড ও কনস্টেবলের চাকরি পাবে। শিক্ষাগত যোগ্যতা অনুযায়ী দেওয়া হবে গ্রুপ–সি পদের চাকরিও। আজ প্রায় ৫০ থেকে ৬০ জন জমিদাতাকে এই জন্য ওখান থেকে আনা হচ্ছে সরকারি উদ্যোগে। এঁদের মধ্যে ৩১ জনের হাতে তুলে দেওয়া হবে জমির দাম বাবদ ক্ষতিপূরণের চেক। ২৪ জনকে দেওয়া হবে পুলিশের চাকরির নিয়োগপত্র। দেউচা পাঁচামি পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম কোল ব্লক। এই কোল ব্লক ছড়িয়ে রয়েছে বীরভূমের মহম্মদবাজার ব্লকের প্রায় ৩৪০০ একর জমির উপর। প্রায় ১১৯৮ মিলিয়ন টন কয়লা মজুত আছে। এই প্রকল্পে প্রায় ৩৫ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ হবে। কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে প্রায় ১ লক্ষ। যার মধ্যে ১০০০ একর রাজ্যের হাতেই রয়েছে।

বন্ধ করুন