বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > প্রকল্পের কাজে গড়িমসি!‌ ঠিকাদার সংস্থাকে কড়া নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রকল্পের কাজে গড়িমসি!‌ ঠিকাদার সংস্থাকে কড়া নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

  • প্রকল্পের কাজ সঠিক সময়ে সম্পন্ন না করলে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার সংস্থার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এমনকী কালো তালিকাভুক্ত করা হবে।

কেন্দ্রীয় সরকারের অনুদানের তোয়াক্কা না করে মানুষের পাশে দাঁড়াবার অঙ্গীকার করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের পর তিনি দ্রুত কাজ করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। এবার পর্যালোচনায় বৈঠকে দিঘায় একটি সেতু নির্মাণ নিয়ে দীর্ঘসূত্রিতা দেখে ক্ষোভপ্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি নবান্ন জানিয়ে দেন, প্রকল্পের কাজ সঠিক সময়ে সম্পন্ন না করলে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার সংস্থার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এমনকী কালো তালিকাভুক্ত করা হবে।

সূত্রের খবর, সঠিক সময়ে কাজ না হওয়ার অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর কাছে জমা পড়েছে। তাতেই তিনি পূর্ত, জনস্বাস্থ্য কারিগরী, স্বাস্থ্য, পুর ও নগরোন্নয়ন–সহ একাধিক দফতরের উপর বেজায় চটেছেন। তিনি চাইছেন, বেঁধে দিয়ে কাজ শেষ করা হোক। প্রত্যেক প্রকল্পের কাজ কবে শুরু হচ্ছে এবং কবে শেষ হবে তার উল্লেখ থাকতে হবে। ইতিমধ্যেই দেখা গিয়েছে নির্দিষ্ট সময়ে কাজ শেষ করতে পারেনি ঠিকাদার সংস্থা। আর সেই খবর এসে পৌঁছেছে মুখ্যমন্ত্রী কানে। সেই কথা শুনে বেজায় চটেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

এমনকী নির্দিষ্ট সময় কাজ শুরুও করা হয়নি বলেও মুখ্যমন্ত্রী কাছে অভিযোগ জানানো হয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেসের সংগঠন এখন অত্যন্ত শক্তিশালী। কোথায় কি হচ্ছে তা দ্রুত খবর চলে আসছে মুখ্যমন্ত্রী কানে। যেমন–পুরুলিয়ার জল প্রকল্প ২০১৭ সালে শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ২০২১ সালেও তা শুরু করতে পারেনি ঠিকাদার সংস্থা। দক্ষিণ দিনাজপুরের তপন–গঙ্গারামপুর জল প্রকল্পের কাজ ও সময়ের মধ্যে শেষ করা যায়নি। এই নিয়ে অভিযোগ জমা পড়েছে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে। তবে কে বা কারা এই অভিযোগ জানাচ্ছেন তা মুখ্যমন্ত্রী খোলসা করেননি।

উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় সরকারের জল জীবন প্রকল্প নিয়ে একুশের নির্বাচনের প্রচারে এসে রাজ্যের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বিভিন্ন প্রকল্প নিয়ে আক্রমণ শানিয়েছে বিজেপি। মুখ্যমন্ত্রী এইসব কথা শুনতে নারাজ। তাই তিনি কড়া নির্দেশ দিয়েছেন। প্রকল্পে দেরি হলে কালো তালিকায় ফেলা হবে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার সংস্থাকে বলে রাজ্যের মুখ্যসচিব সমস্ত দফতরের আধিকারিকদের এই নির্দেশ দিয়েছেন।

বন্ধ করুন