বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌গাড়িতে লাল–নীল আলো লাগাবেন না’‌, মন্ত্রীদের কড়া নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

‘‌গাড়িতে লাল–নীল আলো লাগাবেন না’‌, মন্ত্রীদের কড়া নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর

  • নিজেকে ভিভিআইপি প্রমাণ করার জন্য রাস্তায় পুলিশের ব্যস্ততা, লাল–নীলবাতি জ্বালানো এবং তার জেরে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি পছন্দ নয় তাঁর। এবার নিজের মন্ত্রীদের তিনি নির্দেশ দিয়েছেন, গাড়িতে যেন কোনও লাল–নীল আলো লাগানো না হয়।

নিরাপত্তার আড়ম্বর পছন্দ করেন না মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকী নিজেকে ভিভিআইপি প্রমাণ করার জন্য রাস্তায় পুলিশের ব্যস্ততা, লাল–নীলবাতি জ্বালানো এবং তার জেরে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি পছন্দ নয় তাঁর। এবার নিজের মন্ত্রীদের তিনি নির্দেশ দিয়েছেন, গাড়িতে যেন কোনও লাল–নীল আলো লাগানো না হয়। এমনকী জনসাধারণের চলাচলের রাস্তা আটকে যাতায়াত করাও যাবে না।

মুখ্যমন্ত্রী নিজে কী করেন?‌ নবান্ন সূত্রে খবর, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২০১১ সাল থেকে এই আড়ম্বর এড়িয়ে চলেছেন। তিনি নিজে সরকারি গাড়ি চড়েন না। আর গাড়ির মাথায় লাল–নীল বাতিও লাগাতে দেননি। এমনকী মুখ্যমন্ত্রীর কনভয়ের পুলিশের গাড়িগুলিও যায় তাঁর গাড়ির পিছনে। যাতে সাধারণ মানুষের সমস্যা না হয়। বেশিরভাগ সময়ই তাঁর গাড়ির সামনে কোনও পাইলট কার তিনি নেন না।

ঠিক কী বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী?‌ বৃহস্পতিবার নবান্ন সভাঘরে কলকাতা পুলিশের পদক বিতরণ অনুষ্ঠানে এই নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, ‘আমি মিনিস্টারদের বলেছি, গাড়িতে লাল–নীল আলো লাগাবেন না। পুলিশেরও যাঁরা আছেন, আপনারা যখন রাস্তা দিয়ে যান, তীব্র গতিতে গাড়ি চালিয়ে যান। এটায় কিন্তু বদনাম হয়। আমি নিজে ট্র্যাফিকে দাঁড়াতে খুব পছন্দ করি। যদি অন্য গাড়ি আটকানো হয়, আমার সঙ্গে যাঁরা থাকেন, আমি সারাক্ষণ ওঁদের বকাবকি করি যে, কেন আটকেছে গাড়ি। আমি একদিক দিয়ে যাব, ওরা আর একদিক দিয়ে যাবে। রাস্তা যত সচল থাকবে, তত ভাল থাকবে।’

পুলিশ সার্ভিসে মেয়েদের এগিয়ে আসতে আহ্বান করেন মুখ্যমন্ত্রী। এই বিষয়ে তিনি বলেন, ‘নীচুতলার পুলিশকর্মীরা আমাদের সম্পদ। উচ্চপদে যাঁরা কাজ করেন, তাঁদের মনে রাখতে হবে, নীচুতলার কর্মীরা আপনাদের সাহায্য না করলে সাফল্য আসতে পারে না।’ এভাবেই সব মন্ত্রীদের লাল–নীল আলোর আড়ম্বর ত্যাগ করতে বলেছেন তিনি।

বন্ধ করুন