বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > আবার ‘‌দুয়ারে সরকার’‌ কর্মসূচি কী করে হবে?‌ নবান্নে বৈঠকে বসছেন মুখ্যমন্ত্রী
চলছে দুয়ারে সরকার ক্যাম্প
চলছে দুয়ারে সরকার ক্যাম্প

আবার ‘‌দুয়ারে সরকার’‌ কর্মসূচি কী করে হবে?‌ নবান্নে বৈঠকে বসছেন মুখ্যমন্ত্রী

  • প্রশাসনিক সূত্রে খবর, রাজ্য সরকারের সবচেয়ে বড় প্রকল্পগুলির মধ্যে অন্যতম স্বাস্থ্যসাথী। আবার ব্যয়সাপেক্ষ প্রকল্প ‘লক্ষ্মীর ভান্ডার’। এখনও পর্যন্ত প্রায় ১ কোটি ৭৫ লক্ষ মহিলা উপভোক্তা নিজেদের নাম নথিভুক্ত করেছেন। রাজ্য সরকারের বছরে এই বাবদ প্রায় ১৩ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ভার নিতে হচ্ছে।

রাজ্যে তাপপ্রবাহ চলছে। এই পরিস্থিতিতে আগামী ৫ মে ‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচি হওয়ার কথা। কিন্তু কী ভাবে হবে?‌ তা নিয়ে চিন্তায় প্রশাসনের কর্তারা। কারণ, একদিকে এমন অসহ্য গরম পড়েছে। তাছাড়া ৫মে–৫জুন তৃণমূল কংগ্রেস সরকারের প্রচার কর্মসূচির পরিকল্পনা রয়েছে। এই দুটি বিষয়ে আজ, বুধবার সব দফতরের সচিব, জেলাশাসক এবং পুলিশকর্তাদের নিয়ে বৈঠক করার কথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। যা নিয়ে তৈরি হচ্ছে নানা তথ্য।

তাহলে কী দুয়ারে সরকার কর্মসূচি হবে না?‌ নবান্ন সূত্রে খবর, এখন যা পরিস্থিতি তাতে বোঝা যাচ্ছে, আগেরবারের মতো পুরোদমে হয়তো দুয়ারে সরকার কর্মসূচি হবে না। দু’টি কর্মসূচি চলবে একযোগে। ‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচি বন্ধ করে দেওয়ার কোনও পরিকল্পনা সরকারের নেই। কারণ, এটা সফল কর্মসূচি। মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসতে চায় রাজ্য সরকার।

দুয়ারে সরকার কর্মসূচি কতটা সফল?‌ প্রশাসনিক সূত্রে খবর, রাজ্য সরকারের সবচেয়ে বড় প্রকল্পগুলির মধ্যে অন্যতম স্বাস্থ্যসাথী। আবার ব্যয়সাপেক্ষ প্রকল্প ‘লক্ষ্মীর ভান্ডার’। এখনও পর্যন্ত প্রায় ১ কোটি ৭৫ লক্ষ মহিলা উপভোক্তা নিজেদের নাম নথিভুক্ত করেছেন। রাজ্য সরকারের বছরে এই বাবদ প্রায় ১৩ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ভার নিতে হচ্ছে।

তাহলে আবার কেন এই কর্মসূচি?‌ জানা গিয়েছে, আরও মানুষের কাছে সরকারি প্রকল্প পৌঁছে দিতেই চতুর্থ দফার দুয়ারে সরকার কর্মসূচি করা হবে। এখনও বহু মানুষ সব প্রকল্পের আওতায় আসেননি। মুখ্যমন্ত্রী নিজে চান মানুষ এই সব প্রকল্পের আওতায় এসে জীবনে স্বাচ্ছন্দ্য নিয়ে আসুক। তাই ২০২২–২৩ আর্থিক বছরের বাজেটে সব সামাজিক প্রকল্পের সংস্থান ধরা রয়েছে।

বন্ধ করুন