বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌আমার পদবিটা ভুলে গিয়েছেন’‌, বিপদে সঞ্চালিকার পাশে দাঁড়ালেন মুখ্যমন্ত্রী
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (PTI)
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (PTI)

‘‌আমার পদবিটা ভুলে গিয়েছেন’‌, বিপদে সঞ্চালিকার পাশে দাঁড়ালেন মুখ্যমন্ত্রী

  • তবে এই বিপদেও সঞ্চালিকার পাশে দাঁড়ালেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। নিজেই পরিস্থিতি সামলে নিলেন।

এখন গোটা দেশের বিরোধী মুখ বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকী অন্যান্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের থেকেও জনপ্রিয় তিনি। তারপরও তাঁর পদবি ভুলে গেলেন সঞ্চালিকা। তাও আবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর ভার্চুয়াল চিত্তরঞ্জন ক্যানসার হাসপাতালের দ্বিতীয় ক্যাম্পাসের উদ্বোধনে। এমনও যে গটতে পারে তা কল্পনাও করতে পারেননি কেউ। তবে এই বিপদেও সঞ্চালিকার পাশে দাঁড়ালেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। নিজেই পরিস্থিতি সামলে নিলেন। প্রমাণ করলেন, ভুল তো মানুষেরই হয়।

ঠিক কী ঘটেছে সেখানে?‌ আজ, শুক্রবার চিত্তরঞ্জন ক্যানসার হাসপাতালের দ্বিতীয় ক্যাম্পাসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভার্চুয়ালি যোগ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভাষণ দেওয়ার অনুরোধ করা হয়। তখনই মুখ্যমন্ত্রীর নাম উচ্চারণ করলেও পদবি ভুলে যান সঞ্চালিকা। বিষয়টি বুঝতে পেরেই হাল ধরেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি মহিলা হয়ে আর একজন মহিলাকে বিপদে পড়তে দেননি। এটাই আজ সবাই দেখলেন।

চিত্তরঞ্জন ক্যানসার হাসপাতালের দ্বিতীয় ক্যাম্পাসের উদ্বোধন হয়ে গেল। এটা অবশ্য আগেই করা হয়েছিল বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। এই ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী মন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিক, সুভাষ সরকার, জন বারলা এবং বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। দীর্ঘদিন পর যৌথ প্রকল্পের সূচনায় প্রধানমন্ত্রী–মুখ্যমন্ত্রীর উপস্থিতি দেখা গেল।

সঞ্চালিকাকে ঠিক কী বললেন মুখ্যমন্ত্রী?‌ এদিন ওই বিপদের সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‌ধন্যবাদ সঞ্চালিকাকে। আমার পদবিটা ভুলে গিয়েছেন। হয়তো নার্ভাসনেসের জন্য। আমি কিছু মনে করিনি। কলকাতার অনুষ্ঠান। প্রধানমন্ত্রীর জন্য এসেছি। স্বাস্থ্যমন্ত্রী দু’বার আমাকে ফোন করেছেন।’‌ তবে নিজের পদবি বলতে ভোলেননি মুখ্যমন্ত্রী। আর সঞ্চালিকাকেও বিপদ থেকে উদ্ধার করলেন।

বন্ধ করুন