বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > এবার আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মুখ্যমন্ত্রী!‌ মন্ত্রিসভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এবার আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মুখ্যমন্ত্রী!‌ মন্ত্রিসভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত

  • সূত্রের খবর, রাজ্যের উচ্চশিক্ষায় কাজের গতিতে বাধা দিচ্ছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। ফলে উচ্চশিক্ষায় ছাত্রছাত্রীদের নানা সুযোগ দেওয়া যাচ্ছে না। ছাত্রছাত্রীদের জন্য নানা প্রকল্প আনা যাচ্ছে না। শিক্ষা বিস্তারে রাজ্যপাল নাক গলাচ্ছেন। তাতে ছাত্রছাত্রীদেরই ক্ষতি হচ্ছে বলে মনে করে রাজ্য সরকার।

সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে আচার্য হবেন মুখ্যমন্ত্রী এই বিল আগেই পাশ হয়েছে। তা বিরোধীদের পছন্দ না হলেও বিলটি বিধানসভায় পাশ হয়েছে। এই নিয়ে শাসক–বিরোধী চাপানউতোর রয়েছে। এই পরিস্থিতিতে এবার আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়েরও আচার্যের পদে রাজ্যপালের বদলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বসানোর জন্য বিধানসভায় বিল আসছে বলে সূত্রের খবর। ইতিমধ্যেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে মন্ত্রিসভায়।

বিষয়টি ঠিক কী ঘটতে চলেছে?‌ আগে পদাধিকারবলে রাজ্যপাল রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলির আচার্য হয়ে আসছেন। এবার সেখানে মুখ্যমন্ত্রীকে আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তা নিয়ে বিল বিধানসভায় পাশ হয়ে গিয়েছে আগেই। বাকি ছিল আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়। এই বিশ্ববিদ্যালয় সংখ্যালঘু ও মাদ্রাসা দফতরের আওতায় রয়েছে। তাই আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনেও সংশোধনী এনে মুখ্যমন্ত্রীকে আচার্য করা হবে বলে মন্ত্রিসভায় ঠিক হয়েছে।

আর কী সিদ্ধান্ত হয়েছে?‌ চলতি বছর থেকে স্নাতক স্তরে ভর্তি কেন্দ্রীয় পোর্টালের মাধ্যমে অনলাইনে হবে বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। রাজ্যের সরকারি, সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক স্তরে উচ্চশিক্ষা সংসদের অধীন ওই পোর্টালের মাধ্যমে ভর্তি নেওয়া হবে। সেখানে স্বশাসিত এবং সংখ্যালঘু কলেজগুলিকে ওই কেন্দ্রীয় পোর্টালের আওতার বাইরে রাখা হয়েছে।

কেন এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে?‌ সূত্রের খবর, রাজ্যের উচ্চশিক্ষায় কাজের গতিতে বাধা দিচ্ছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। ফলে উচ্চশিক্ষায় ছাত্রছাত্রীদের নানা সুযোগ দেওয়া যাচ্ছে না। ছাত্রছাত্রীদের জন্য নানা প্রকল্প আনা যাচ্ছে না। শিক্ষা বিস্তারে রাজ্যপাল নাক গলাচ্ছেন। তাতে ছাত্রছাত্রীদেরই ক্ষতি হচ্ছে বলে মনে করে রাজ্য সরকার।

বন্ধ করুন