বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌এটা রাম রাজ্য নয়, কিলিং রাজ্য’‌, লখিমপুরে কৃষক হত্যা নিয়ে তোপ মমতার
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (HT_PRINT)
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (HT_PRINT)

‘‌এটা রাম রাজ্য নয়, কিলিং রাজ্য’‌, লখিমপুরে কৃষক হত্যা নিয়ে তোপ মমতার

  • আজ, সোমবার রেকর্ড ভাঙা ভোটে জয়ের পর ভবানীপুরের শীতলা মন্দির এবং গুরুদ্বারে পুজো দিতে যান মুখ্যমন্ত্রী।

উপনির্বাচনে জিতেই লখিমপুরে কৃষক হত্যা নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিয়েছিলেন তিনি। পাঁচ সাংসদের টিম পাঠিয়ে পাশে থাকার বার্তা দিয়েছেন কৃষকদের। এবার সরাসরি যোগী রাজ্যকে তুলোধনা করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরিতে কৃষক হত্যার ঘটনায় যোগী সরকারকে তীব্র আক্রমণ শানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আজ, সোমবার রেকর্ড ভাঙা ভোটে জয়ের পর ভবানীপুরের শীতলা মন্দির এবং গুরুদ্বারে পুজো দিতে যান মুখ্যমন্ত্রী। সেখান থেকে বেরিয়েই বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘‌আজ তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদদের ঘটনাস্থল পর্যন্ত যেতে দেয়নি যোগীর পুলিশ। মৃতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে দেয়নি। এমনকী কথা বলতে পর্যন্ত যেতে দেয়নি। সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করে রেখেছে। বিজেপি সরকার গণতন্ত্রে বিশ্বাসী নয়। একনায়কতন্ত্রে বিশ্বাসী।’‌

বাংলায় জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সদস্যদের পাঠানোর প্রসঙ্গ তুলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‌বাংলায় শান্তির পরিবেশ আছে। তা সত্ত্বেও মানবাধিকার কমিশন পাঠিয়ে বাইরে বাংলার বদনাম করে। কিন্তু একজন মন্ত্রীর ছেলে কৃষকদের মেরে ফেলল তাতে শাস্তি হচ্ছে না। এটা লজ্জা! কৃষকদের নিশংস ভাবে হত্যা করা হয়েছে।’‌

এদিন উত্তরপ্রদেশের একের পর এক ঘটনা মুখ্যমন্ত্রীর মুখে উটে আসে। হাতরাস কাণ্ড, করোনা রোগীকে নদীতে ভাসিয়ে দেওযা এবং অসমে এনআরসি নিয়েও ক্ষোভ উগড়ে দেন মমতা। তাঁর কথায়, ‘‌এরা রাম রাজ্যের কথা বলে। এটা রাম রাজ্য নয়, কিলিং রাজ্য। এদের কোনও মানবিকতা নেই। মানবিকতার সর্বনাশ। মানুষের উচিত এই সরকারের বিরুদ্ধে ১৪৪ ধারা জারি করা।’‌

বন্ধ করুন