বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌কোনও অপরাধী ছাড়া পাবে না’‌, ভবানীপুরে গিয়ে বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী
নিহত দম্পতির বাড়িতে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

‘‌কোনও অপরাধী ছাড়া পাবে না’‌, ভবানীপুরে গিয়ে বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

  • দু’‌দিন আগে সোমবার মুখ্যমন্ত্রীর পাড়ায় খুন হন শাহ দম্পতি। ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্ট অনুযায়ী, ব্যবসায়ী অশোক শাহ এবং রশ্মিতা শাহকে ছুরি মেরে খুন করা হয়। পুরো ঘটনাটি ঘটে সোমবার দুপুরে। গুলি মাথার পিছনে লেগেছিল বলেও তথ্য মেলে। যদিও তার শব্দ কেউ কেন শুনতে পেল না?‌ তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

উত্তরবঙ্গ থেকে ফোন করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কলকাতা পুলিশ কমিশনার বিনীত গোয়েলকে। ভবানীপুরে গুজরাতি দম্পতি হত্যার ঘটনায় দ্রুত অপরাধীদের গ্রেফতার করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। তবে এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। আজ, বুধবার আলিপুরদুয়ার থেকে ফিরেই নিহত দম্পতি অশোক শাহ এবং রশ্মিতা শাহের বাড়িতে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কে আছেন?‌ এদিন ভবানীপুরে যান তিনি। তাঁর সঙ্গে রয়েছেন পুলিশ কমিশনার বিনীত গোয়েল। এখানের বিধায়ক স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর সঙ্গে রয়েছেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম। স্থানীয় কাউন্সিলর কাজরী বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে পুলিশ কমিশনারের কাছ থেকে সম্পূর্ণ অপরাধের বিবরণ শুনে নিচ্ছেন তিনি। আজই এই দম্পতির হারিয়ে যাওয়া মোবাইল উদ্ধার হয়েছে।

ঠিক কী ঘটেছিল ভবানীপুরে?‌ দু’‌দিন আগে সোমবার মুখ্যমন্ত্রীর পাড়ায় খুন হন শাহ দম্পতি। ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্ট অনুযায়ী, ব্যবসায়ী অশোক শাহ এবং রশ্মিতা শাহকে ছুরি মেরে খুন করা হয়। পুরো ঘটনাটি ঘটে সোমবার দুপুরে। গুলি মাথার পিছনে লেগেছিল বলেও তথ্য মেলে। যদিও তার শব্দ কেউ কেন শুনতে পেল না?‌ তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। তদন্তকারীরা মনে করছেন, একাধিক ভাড়াটে খুনি ছিল এবং তারা সকলেই শাহ দম্পতির পরিচিত।

মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কী কখা হয়েছিল?‌ শাহ দম্পতির তিন কন্যা। একজনের বিয়ে ভবানীপুরেই হয়েছে। মেজ মেয়ে চাকরি করেন। আর ছোট মেয়ে টেবিল টেনিস প্রশিক্ষণ নেন। সোমবারের ঘটনার পর মঙ্গলবার তাঁদের দু’জন মেয়ের সঙ্গে কথা হয়েছিল মুখ্যমন্ত্রীর। ফোনে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, তাঁরা যেন পুলিশের তদন্তে আস্থা রাখেন। শীঘ্রই অপরাধীরা ধরা পড়বে। আর আজই, বুধবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এলেন শাহ দম্পতির বাড়িতে। আজ মুখ্যমন্ত্রী শাহ দম্পতির মেয়েদের বলেন, ‘‌কোনও অপরাধী ছাড়া পাবে না। পুলিশ দ্রুততার সঙ্গে কাজ করছে। শীঘ্রই খুনের কিনারা হবে। ভরসা রাখুন। আমি খুব হতচকিত। কোন পরিচিত লোকের যোগ রয়েছে। পুলিশকে কড়া ব্যবস্থা নিতে হবে। পুলিশ তদন্তে অনেকদূর এগিয়েছে, সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে তদন্ত চলছে। খুব দ্রুত অপরাধীরা ধরা পড়বে। আমি চাই এলাকা শান্ত থাকবে, বাইরে থেকে এসে অশান্ত করার চেষ্টা চলছে, এই ঘটনা বরদাস্ত করব না। সব ধর্মের মানুষ ভবানীপুরে একসঙ্গে থাকেন।’‌

বন্ধ করুন