বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Mamata Banerjee Ganga Arati: কলকাতায় গঙ্গা আরতি উদ্বোধনে মুখ্যমন্ত্রী, বারাণসীর ধাঁচেই কি হবে পুজা–অর্চনা?

Mamata Banerjee Ganga Arati: কলকাতায় গঙ্গা আরতি উদ্বোধনে মুখ্যমন্ত্রী, বারাণসীর ধাঁচেই কি হবে পুজা–অর্চনা?

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (PTI)

মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ দিতেই কোন ঘাটে গঙ্গা আরতি শুরু করা হবে তা নিয়ে সমীক্ষা করেছিল পুরসভা। কারণ এখানে শর্ত ছিল, ঘাটের সঙ্গে মন্দির থাকতে হবে। তাই নানা ঘাট ঘুরে বাজেকদমতলা ঘাটের কথাও ভাবা হয়েছিল। এখানে সব ব্যবস্থা করা হয়ে গিয়েছে। গঙ্গা আরতি থেকে পর্যটকদের নিরাপত্তা সবটাই করা হয়েছে।

বারাণসীর ধাঁচে কলকাতায় গঙ্গা আরতি করতে চেয়ে নির্দেশ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই মতো মেয়র ফিরহাদ হাকিম তাঁর পারিষদদের নিয়ে মাঠে নেমে পড়েছিলেন। ঘাট খুঁজতে চেষ্টার কসুর করেননি তিনি। এবার সব ঠিক থাকলে আগামী বৃহস্পতিবার কলকাতার বাজেকদমতলা ঘাটে এই গঙ্গা আরতির উদ্বোধন করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তার প্রস্তুতি এখন থেকে শুরু হয়ে গিয়েছে।

২০২২ সালে উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারে গিয়েছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। বারাণসীতে গঙ্গা আরতি দেখেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এমনকী সেই আরতিতে অংশ নেন তিনি। আর বারাণসী থেকে ফিরে এসেই কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে গঙ্গা আরতির আয়োজন করতে নির্দেশ দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ পেয়েই কাজ শুরু করেছিল কলকাতা পুরসভা। বৃহস্পতিবার থেকে সেই গঙ্গা আরতি শুরু করা হবে বলে সূত্রের খবর। সেদিন বিকেল ৪টে নাগাদ ১৫ জন পুরোহিতের উপস্থিতিতে গঙ্গা আরতি অনুষ্ঠানের সূচনায় থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী, মেয়র, মেয়র পরিষদ সহ শীর্ষনেতৃত্বরা। গঙ্গা আরতি–সহ একটি দেবী গঙ্গার মূর্তিও উন্মোচন করবেন মুখ্যমন্ত্রী।

এদিকে ইতিমধ্যেই গঙ্গা আরতির মহড়া চলেছে বাজেকদমতলা ঘাটে। তারপর বৃহস্পতিবার গঙ্গা আরতি উদ্বোধনের দিন ঠিক হয়। মেয়র ফিরহাদ হাকিম বাজেকদমতলা ঘাট পরিদর্শন করেছেন। কলকাতা পুলিশও নিরাপত্তা ব্যবস্থা খতিয়ে দেখেছে। গঙ্গা আরতির জন্য বাজেকদমতলা ঘাটকে সাজিয়ে তুলেছে কলকাতা পুরসভা। আলো লাগানো থেকে ঘাট পরিষ্কার রাখার বন্দোবস্ত করা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী গঙ্গা আরতির সূচনা করলেই পর্যটকদের দেখার জন্য খুলে দেওয়া হবে। সঙ্গে থাকবে একটি লেজার শো।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ অন্যদিকে কলকাতা পুরসভা সূত্রে খবর, মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ দিতেই কোন ঘাটে গঙ্গা আরতি শুরু করা হবে তা নিয়ে সমীক্ষা করেছিল পুরসভা। কারণ এখানে শর্ত ছিল, ঘাটের সঙ্গে মন্দির থাকতে হবে। তাই নানা ঘাট ঘুরে বাজেকদমতলা ঘাটের কথাও ভাবা হয়েছিল। এখানে সব ব্যবস্থা করা হয়ে গিয়েছে। গঙ্গা আরতি থেকে পর্যটকদের নিরাপত্তা সবটাই করা হয়েছে। বাইরে থেকে আসা পর্যটকদের জন্য আগামী দিনে যাতে বড় আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হয় এই গঙ্গা আরতি তার জন্য সাজিয়ে তোলা হয়েছে।‌ বারাণসীর ধাঁচেই সব করা হয়েছে।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন