বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বেপরোয়া গতির মাশুল, সল্টলেকে মৃত্যু পার্ক সার্কাসের যুবকের
সল্টলেকে সেক্টর ফাইভে বেপরোয়াভাবে বাইক চালাতে গিয়ে মৃত্যু হল এক যুবকের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে হিন্দুস্তান টাইমস)
সল্টলেকে সেক্টর ফাইভে বেপরোয়াভাবে বাইক চালাতে গিয়ে মৃত্যু হল এক যুবকের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে হিন্দুস্তান টাইমস)

বেপরোয়া গতির মাশুল, সল্টলেকে মৃত্যু পার্ক সার্কাসের যুবকের

নিয়ন্ত্রণ হারিয়েই এই দুর্ঘটনা নাকি এর পিছনে অন্য কোনও কারণ আছে, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

সল্টলেকে সেক্টর ফাইভে বেপরোয়াভাবে বাইক চালাতে গিয়ে মৃত্যু হল এক যুবকের। যুবকের বাড়ি পার্ক সার্কাসে। মর্মান্তিক এই ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত ওই যুবকের নাম নেহাল আহমেদ (‌২৫)‌। শনিবার রাতে যখন নেহাল সল্টলেকের সেক্টর ফাইভ দিয়ে বাইকে করে আসছিলেন, তখনই আচমকা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ব্রিজে ধাক্কা মারেন যুবক। বাইপাসের দিক থেকে উইপ্রো মোড়ের দিকে আসার সময়ে নিয়ন্ত্রণ হারায় বাইকটি। এরপরই দুর্ঘটনার কবলে পড়ে ওই যুবক। দুর্ঘটনার পরে তাঁকে তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ। কিন্তু তাঁকে বাঁচানো যায়। চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। নিয়ন্ত্রণ হারিয়েই এই দুর্ঘটনা নাকি এর পিছনে অন্য কোনও কারণ আছে, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

এর আগে বেপরোয়াভাবে বাইক চালাতে গিয়ে একাধিকবার অনেককেই দুর্ঘটনার কবলে পড়তে হয়েছে। বেপরোয়াভাবে বাইক বা গাড়ি চালানো যাতে কমে, সেজন্য পুলিশ 'সেফ ড্রাইভ, সেভ লাইভ' অভিযানও চালু করে পুলিশ। যে সব বাইক আরোহীদের হেলমেট নেই, তাঁদের জরিমানা পর্যন্ত করা হচ্ছে। কিন্তু এত কিছুর পরেও বাইক দুর্ঘটনা এড়ানো যাচ্ছে না। এর আগে খোদ শহর কলকাতার বুকে গভীর রাতে বাইক বাহিনীর দাপট শুরু হয়েছিল। তবে পুলিশি তৎপরতায় তা অনেকটাই এখন নিয়ন্ত্রণে।

বন্ধ করুন