বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > 'অর্থের সংকটে' পেনশন আটকে থাকার নোটিশ পড়ল কলকাতা পুরনিগমে, 'জানেনই না ফিরহাদ'!
'অর্থের সংকটে' পেনশন আটকে থাকার নোটিশ পড়ল কলকাতা পুরনিগমে, 'জানেনই না ফিরহাদ'!। (ফাইল ছবি, সৌজন্যে পিটিআই এবং সংগৃহীত)

'অর্থের সংকটে' পেনশন আটকে থাকার নোটিশ পড়ল কলকাতা পুরনিগমে, 'জানেনই না ফিরহাদ'!

  • পুরনিগমের ভাঁড়ে মা ভবানী অবস্থার কথা স্বীকার করে নিয়েছেন ফিরহাদ।

'অর্থের সংকট'। সেজন্য অবসরপ্রাপ্ত কর্মীদের পেনশনে কোপ পড়েছে। এমনই এক নোটিশ ঘিরে বৃহস্পতিবার কলকাতা পুরনিগমে টানাপোড়েন শুরু হল। একটি মহলের দাবি, সেই নোটিশ দেওয়ার বিষয়ে কিছুই জানেন না মেয়র ফিরহাদ হাকিম। যদিও পুরনিগমের ভাঁড়ে মা ভবানী অবস্থার কথা স্বীকার করে নিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার একটি সাদা কাগজে কালো হরফে লেখা নোটিশ সামনে আসে। তাতে লেখা আছে, 'অর্থের সংকটের' জেরে কলকাতা পুরনিগমের অবসরপ্রাপ্ত কর্মীদের পেনশন আপাতত দেওয়া যাচ্ছে না। আপাতত মিলবে না পেনশন সংক্রান্ত সুযোগ-সুবিধাও। যে কর্মীরা গত বছরের সেপ্টেম্বরে অবসর নিয়েছেন, তাঁদেরই এরকম সমস্যার মুখে পড়তে হবে বলে জানানো হয়। তার জেরে মাথায় হাত পড়ে পুরনিগমের অবসরপ্রাপ্ত কর্মীদের। তারইমধ্যে রাতের দিকে অস্বস্তিতে পড়ে যান পুরকর্তারা।

কিন্তু কেন?

সন্ধ্যায় বেহালার একটি অনুষ্ঠানে ফিরহাদ গিয়ে পুরনিগমের আর্থিক দুর্দশার কথা স্বীকার করে নেন। তিনি জানান, আর্থিক দিক থেকে পুরনিগমের কিছুটা ‘অসুবিধা’ আছে। টাকা আটকে আছে কয়েকটি ক্ষেত্রে। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে সেই সমস্যা কেটে যাবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন ফিরহাদ।

তারইমধ্যে একটি মহলের তরফে দাবি করা হয়, মেয়রের অগোচরেই বৃহস্পতিবার পেনশন আটকে থাকার নোটিশ পড়েছে। অর্থাৎ মেয়রকেই না জানিয়েই দেওয়া হয়েছে নোটিশ। সেই পরিস্থিতিতে রাতেই ফিরহাদ পেনশন বিভাগকে নোটিশকাণ্ডে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন বলে ওই মহলের তরফে দাবি করা হয়েছে। সূত্রের খবর, বিস্তারিত রিপোর্ট জমা দিতে বলেছেন ফিরহাদ। যদিও পেনশন বিভাগের দায়িত্বে থাকা চিফ ম্যানেজারের দাবি, নোটিশের বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। সেই দাবি নিয়ে অবশ্য পুরনিগমের অভ্যন্তরেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

বন্ধ করুন