বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কলকাতায় লুকিয়ে ছিল ধর্ষণ ও ব্ল্যাকমেলিংয়ে অভিযুক্ত দম্পতি, ধরল মুম্বই পুলিশ
প্রতীকি ছবি

কলকাতায় লুকিয়ে ছিল ধর্ষণ ও ব্ল্যাকমেলিংয়ে অভিযুক্ত দম্পতি, ধরল মুম্বই পুলিশ

  • ২০২১ সালের মার্চে গোটা ঘটনার কথা জানিয়ে মুম্বইয়ের নাগপাড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তরুণী। এর পরই গা ঢাকা দেয় অভিযুক্তরা। প্রযুক্তি ব্যবহার করে দীর্ঘদিন ধরে খোঁজাখুঁজির পর পুলিশ জানতে পারে কলকাতায় নিউ মার্কেট থানা এলাকায় লুকিয়ে রয়েছে তারা।

ধর্ষণ ও ব্ল্যাকমেলের অভিযোগে অভিযুক্ত দম্পতিকে কলকাতা থেকে ধরল মুম্বই পুলিশ। শুক্রবার রাতে কলকাতার নিউ মার্কেট থানা এলাকার হোটেল থেকে ইউসুফ জামাল ও নাজ সইদ নামে দম্পতিকে গ্রেফতার করে মুম্বই পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ, ব্ল্যাকমেলিং-সহ একাধিক গুরুতর অভিযোগ রয়েছে। ৪ দিনের রিমান্ডে তাদের মুম্বই নিয়ে গিয়েছে নাগপাড়া থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ঘটনার সূত্রপাত ২০১৫ সালে। মুম্বইয়ের এক তরুণীর সঙ্গে পার্টিতে পরিচয় হয় ইউসুফের। ওই তরুণীকে বাড়িতে আমন্ত্রণ জানান ইউসুফ। বলেন, স্ত্রীর সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবেন তিনি।

নিমন্ত্রণ রক্ষা করতে তরুণী ইউসুফের বাড়িতে পৌঁছলে তাকে মাদক মেশানো সরবত খাওয়ানো হয় বলে অভিযোগ। এর পর তরুণীকে ধর্ষণ করে অভিযুক্ত। অভিযুক্তের স্ত্রী নাজ সইদ ধর্ষণের ভিডিয়োগ্রাফি করেন। এর পর ওই ভিডিয়ো ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে তরুণীকে লাগাতার ব্ল্যাকমেল করে প্রায় দেড় কোটি টাকা আদায় করে অভিযুক্তরা। এমনকী তরুণীর নাবালিকা মেয়েকেও যৌন হেনস্থা করে তারা।

২০২১ সালের মার্চে গোটা ঘটনার কথা জানিয়ে মুম্বইয়ের নাগপাড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তরুণী। এর পরই গা ঢাকা দেয় অভিযুক্তরা। প্রযুক্তি ব্যবহার করে দীর্ঘদিন ধরে খোঁজাখুঁজির পর পুলিশ জানতে পারে কলকাতায় নিউ মার্কেট থানা এলাকায় লুকিয়ে রয়েছে তারা। শুক্রবার রাতে কলকাতা পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে নিউ মার্কেট থানা এলাকায় একটি হোটেলে তল্লাশি চালান মুম্বই পুলিশের গোয়েন্দারা। প্রথমে গ্রেফতার করা গয় ইউসুফকে। পরে ধরা পড়েন নাজ।

শনিবার অভিযুক্তদের আদালতে পেশ করে ৪ দিনের ট্রানজিট রিমান্ডে নিয়ে গিয়েছে মুম্বই পুলিশ।

 

বন্ধ করুন