বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Suvendu Adhikari: কুণালের মানহানি মামলায় শুভেন্দুর আরজি খারিজ, সশরীরেই হাজিরা দিতে হবে আদালতে

Suvendu Adhikari: কুণালের মানহানি মামলায় শুভেন্দুর আরজি খারিজ, সশরীরেই হাজিরা দিতে হবে আদালতে

শুভেন্দু অধিকারী। ফাইল ছবি

শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে মানহানি মামলা করেছিলেন কুণাল ঘোষ। কুণালের অভিযোগ ছিল, শুভেন্দু অধিকারী একটি সভায় তাকে ‘বাবার ত্যাজ্যপুত্র’ বলে মন্তব্য করেছিলেন। তার পরিপ্রেক্ষিতে ব্যাঙ্কশাল শুভেন্দুর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা ঠুঁকে দিয়েছিলেন কুণাল। 

তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক তথা মুখপাত্র কুণাল ঘোষের করা মানহানি মামলায় অস্বস্তি বাড়ল বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর। তার আরজি খারিজ করে দিল আদালত। শুভেন্দু অধিকারীকে আদালতে সশরীরে হাজিরা দিতে হবে বলেই নির্দেশ দিলেন বিচারক। আগামী ২২ সেপ্টেম্বর শুভেন্দু অধিকারীকে আদালতে সশরীরে হাজিরা দেওয়ার দিন নির্দিষ্ট করে দিয়েছেন বিচারক।

শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে মানহানি মামলা করেছিলেন কুণাল ঘোষ। কুণালের অভিযোগ ছিল, শুভেন্দু অধিকারী একটি সভায় তাকে ‘বাবার ত্যাজ্যপুত্র’ বলে মন্তব্য করেছিলেন। তার পরিপ্রেক্ষিতে ব্যাঙ্কশাল শুভেন্দুর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা ঠুঁকে দিয়েছিলেন কুণাল। সেই মামলায় প্রথমে বিচারক শুভেন্দু অধিকারীকে হাজিরা নির্দেশ দিয়েছিলেন। পরে শুভেন্দু অধিকারীর আইনজীবী তাকে ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে ছাড় দেওয়ার জন্য বিচারকের কাছে আবেদন জানান।

শুভেন্দুর আইনজীবীর যুক্তি ছিল, তার মক্কেলের বাড়ি কাঁথি। ফলে কলকাতা থেকে অনেক দূরে অবস্থিত শুভেন্দুর বাড়ি। তাই সুপ্রিম কোর্টের পরামর্শ মেনে তার মক্কেলকে সশরীরে হাজিরার ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হোক। এর পাল্টা হিসেবে কুণাল ঘোষের আইনজীবী অয়ন চক্রবর্তী শুভেন্দুর বিরুদ্ধে আদালতকে গুরুত্ব না দেওয়ার অভিযোগ তোলেন। তার পাল্টা যুক্তি ছিল, শুভেন্দু অধিকারী বিরোধী দলনেতা। তিনি বিধানসভায় আসেন। মাত্র কয়েকশো মিটার দূরে তার অফিস অবস্থিত। তিনি যদি রাজনীতির জন্য সারা বাংলা ঘুরতে পারেন তাহলে কেন আদালতে আসতে পারবেন না? কুণালের আইনজীবীর সেই যুক্তি মেনে শুভেন্দুকে সশরীরে হাজিরার নির্দেশ দেন বিচারক।

বন্ধ করুন