অভিযুক্ত মা সন্ধ্যা মালো
অভিযুক্ত মা সন্ধ্যা মালো

শিশু কন্যাকে হত্যায় সন্ধ্যা মালোর পুলিশ হেফাজত, পেলেন না আইনজীবী

ঘটনার বিবরণ শুনে অবাক হয়ে যান বিচারপতিও। এর পরই সন্ধ্যাকে ৭ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন তিনি।

বেলেঘাটার সন্তানহন্তা মা সন্ধ্যা মালোর সমর্থনে আদালতে দাঁড়ালেন না কোনও আইনজীবী। প্রায় ৩০ মিনিট ধরে সরকারি আইনজীবীর বক্তব্য শোনার পর তাঁকে ৭ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক।

সোমবার দুপুরে শিয়ালদহ কোর্টে তোলা হয় নিজের ২ মাসের কন্যা সন্তানকে খুনে অভিযুক্ত সন্ধ্যা মালোকে। তাঁর হয়ে সওয়াল করতে রাজি হননি কোনও আইনজীবী। ফলে সরকারি কৌসুলি নিজের বক্তব্য রাখা শুরু করেন। প্রায় ৩০ মিনিট ধরে গোটা ঘটনাক্রম বিচারককে বুঝিয়ে বলেন তিনি। গোটা সময়টা মাথা নিচু করে এজলাসে দাঁড়িয়ে ছিলেন সন্ধ্যা।

ঘটনার বিবরণ শুনে অবাক হয়ে যান বিচারপতিও। এর পরই সন্ধ্যাকে ৭ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন তিনি।

শনিবার দুপুরে নিজের ২ মাসের কন্যাসন্তানকে সেলোটেপ পেঁচিয়ে খুন করেন বেলেঘাটার একটি আবাসনের বাসিন্দা সন্ধ্যা মালো। খুন করার পর দেহটি ঢুকিয়ে দেন আবাসনেরই একটি ম্যানহোলে। এর পর মেয়ে অপহরণের গল্প ফাঁদেন তিনি। যদিও তাঁর সব জারিজুরি ফাঁস হয়ে যায় আবাসনে লাগানো সিসি ক্যামেরায়।

গভীর রাতে জেরার মুখে মেয়েকে খুন করার কথা স্বীকার করেন তিনি। এর পর তাঁকে ঘটনাস্থলে নিয়ে গিয়ে ম্যানহোল থেকে শিশুকন্যার দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তবে খুনের কারণ নিয়ে এখনো ধোঁয়াশায় পুলিশ। সন্ধ্যা পুলিশকে জানিয়েছেন, সন্তানকে নিয়ে ব্যতিব্যস্ত হয়ে উঠেছিলেন তিনি।

বন্ধ করুন