বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Covid-19 in Kolkata: আক্রান্ত প্রগতি ময়দান থানার ওসি, সস্ত্রীক ভরতি হাসপাতালে
এলাকায় বহিরাগতদের প্রবেশ নিয়ন্ত্রণ করতে শহরের একাধিক এলাকায় তৈরি হয়েছে অস্থায়ী ব্যারিকেড। রবিবার কলকাতার এক পাড়ার ছবি, সৌজন্যে পিটিআই। (PTI)
এলাকায় বহিরাগতদের প্রবেশ নিয়ন্ত্রণ করতে শহরের একাধিক এলাকায় তৈরি হয়েছে অস্থায়ী ব্যারিকেড। রবিবার কলকাতার এক পাড়ার ছবি, সৌজন্যে পিটিআই। (PTI)

Covid-19 in Kolkata: আক্রান্ত প্রগতি ময়দান থানার ওসি, সস্ত্রীক ভরতি হাসপাতালে

  • ঘটনার জেরে স্যানিটাইডজ করা হয়েছে প্রগতি ময়দান থানা। খতিয়ে দেখা হচ্ছে আধিকারিকের সংস্পর্শে আসা পুলিশকর্মীদের।

করোনা সংক্রমণের শিকার হলেন ইএম বাইপাস সংলগ্ন প্রগতি ময়দান থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক। তাঁর স্ত্রীরও Covid-19 উপসর্গ দেখা দিয়েছে। দুজনকেই ভরতি করা হয়েছে বাইপাসের এক কোভিড হাসপাতালে। 

ঘটনার জেরে স্যানিটাইডজ করা হয়েছে প্রগতি ময়দান থানা। খতিয়ে দেখা হচ্ছে আধিকারিকের সংস্পর্শে আসা পুলিশকর্মীদের।

জানা গিয়েছে, গত ২৭ এপ্রিল ওই পুলিশ আধিকারিকের শরীরে করোনা উপসর্গ দেখা দিলেও তিনি বাড়িতে কোয়ারেন্টাইন ছিলেন। কয়েক দিন পরে পরীক্ষায় তিনি করোনা পজিটিভ প্রমাণিত হন। 

বাড়িতে থাকাকালীন তাঁর স্ত্রীর শরীরেও করোনার উপসর্গ দেখা দেয়। তাঁর নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করতে পাঠানো হয়েছে। তবে চূড়ান্ত রিপোর্ট না পাওয়া গেলেও ওই দম্পতিকে ইএম বাইপাসে রাজ্য সরকার চিহ্নিত কোভিড হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে।

পুলিশ প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, আক্রান্ত আধিকারিক গত বুধবার পর্যন্ত থানায় ডিউটি দিয়েছিলেন। এর ফলে বেশ কয়েকজন সহকর্মী তাঁর সংস্পর্শে আসেন এবং তাঁদেরও সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যাচ্ছে। বিষয়টি ঘিরে পুলিশকর্মীদের মধ্যে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

অন্য দিকে, পুলিশকর্মীদের মনোবল বাড়াতে রবিবার প্রগতি ময়দান থানায় যান কলকাতা পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার ডি পি সিং। তিনি সাবধানতা অবলম্বন করার জন্য বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন। শুরু হয়েছে থানা জীবাণুমুক্ত করার প্রক্রিয়া।

এর আগে কলকাতা বন্দর এলাকা এবং জোড়াবাগান থানার দুই পুলিশ আধিকারিকও করোনা পজিটিভ ধরা পড়েন। আক্রান্ত হয়েছিলেন কলকাতা উত্তর ডিভিশনের এক পুলিশকর্মীও। তবে তিন জনই চিকিৎসার পরে আপাতত রোগমুক্ত। 

বন্ধ করুন