বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলায় আদালতের রায়ের সমালোচনায় CPIM
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলায় আদালতের রায়ের সমালোচনায় CPIM

এদিন রায় ঘোষণার পর সিপিএম বিধায়ক তন্ময় ভট্টাচার্য বলেন, ‘একটা জনরোষ সংগঠিত করা হয়েছিল। ১৯৪৯ থেকেই সংগঠিত করা হয়েছিল তা চূড়ান্ত রূপ নেয় ১৯৮৯ থেকে। সোমনাথ মন্দির থেকে যখন রথযাত্রা শুরু হয় অযোধ্যা অভিমুখে, তখন সেটা অপরিকল্পিত কী করে হয় আমি জানি না।

বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলার রায়ের বিরোধিতায় সরব হল সিপিএম। রায়ে আদালতের একাধিক পর্যবেক্ষণ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন দলের বিধায়ক তন্ময় ভট্টাচার্য। এদিন তিনি বলেন, আদালত ওই ঘটনা পরিকল্পিত নয় বলে যে মন্তব্য করেছে তা গ্রহণযোগ্য নয়। 

বুধবার এসেছে বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলার রায়। তাতে আদবাণী-সহ ৩২ জনকে অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের অভিযোগ থেকে বেকসুর খালাস দিয়েছে লখনউয়ের বিশেষ সিবিআই আদালত। রায়ের বিরোধিতায় সোচ্চার হয়েছে কংগ্রেসসহ বিরোধী দলগুলি। রায়ের সমালোচনা করেছে রাজ্যের সিপিএম নেতৃত্বও। 

এদিন রায় ঘোষণার পর সিপিএম বিধায়ক তন্ময় ভট্টাচার্য বলেন, ‘একটা জনরোষ সংগঠিত করা হয়েছিল। ১৯৪৯ থেকেই সংগঠিত করা হয়েছিল তা চূড়ান্ত রূপ নেয় ১৯৮৯ থেকে। সোমনাথ মন্দির থেকে যখন রথযাত্রা শুরু হয় অযোধ্যা অভিমুখে, তখন সেটা অপরিকল্পিত কী করে হয় আমি জানি না। সেই সময় থেকে রাম মন্দির নির্মাণের জন্য ইট পাঠানো শুরু হয়। গোটা দেশ থেকে রাম শিলা পাঠানো হয়, স্লোগান দেওয়া হয়, এক ধাক্কা অউর দো, বাবরি মসজিদ তোড় দো। অপরিকল্পিত?’

তন্ময়ের প্রশ্ন, ‘স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে মানুষ সংগঠিত হলে তার হাতে কি সাবল, কোদাল, গাঁইতি থাকে?’ 

বন্ধ করুন