বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Bharat Jodo Yatra: ভারত জোড়ো যাত্রার সমাপ্তিতে থাকতে না পারার কারণ জানিয়ে অধীরকে চিঠি সেলিমের

Bharat Jodo Yatra: ভারত জোড়ো যাত্রার সমাপ্তিতে থাকতে না পারার কারণ জানিয়ে অধীরকে চিঠি সেলিমের

অধীর চৌধুরী ও মহম্মদ সেলিম

শেষ দিন যাত্রায় উপস্থিত থাকতে পারবে না বলে জানিয়ে চিঠি দিয়েছে সিপিএম। যাত্রায় থাকতে পারবে না বলে চিঠি দিয়ে জানিয়েছে সিপিআই, আরএসপি, ফরোওয়ার্ড ব্লকও।

নেতাজির জন্মদিনেই শেষ প্রদেশ কংগ্রেসের ভারত জোড়ো যাত্রা। শেষ দিনে হাজির থাকার জন্য সিপিএম-সহ বাম দলগুলিকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। কিন্তু শেষ দিন যাত্রায় উপস্থিত থাকতে পারবে না বলে জানিয়ে চিঠি দিয়েছে সিপিএম। যাত্রায় থাকতে পারবে না বলে চিঠি দিয়ে জানিয়েছে সিপিআই, আরএসপি, ফরোওয়ার্ড ব্লকও।

সিপিএমের চিঠিটি লিখেছেন দলের রাজ্য সম্পাদক মহম্মদ সেলিম। তিনি ভারত জোড়ো যাত্রার সাফল্য কামনা করে অধীর চৌধুরীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। এর সঙ্গে জানিয়েছেন কেন, তিনি হাজির হতে পারছেন না। মহম্মদ সেলিম লিখেছেন, ২৩ জানুয়ারি উপলক্ষে দেশপ্রেম দিবস পালন করে থাকেন তাঁরা। সেই উপলক্ষ্যে বাম দলগুলি একাধিক কর্মসূচি নিয়েছে। সেই কর্মসূচিতে তাদের থাকতে হবে বলে কার্সিংয়ে ভারত জোড়ো যাত্রায় থাকতে পারছেন না।

বামফ্রণ্টের শরিকদের আলাদা ভাবেই চিঠি দিয়েছেন অধীর। অন্য এক শরিক আরএসপিও চিঠি দিয়ে তাদের না থাকার কারণ জানিয়েছে। আরএসপি-র রাজ্য সম্পাদক তপন হোড় লিখেছেন, '২৩ জানুয়ারি মহানায়ক নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর জন্মদিন উপলক্ষে পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচিতে অংশ নেওয়ার জন্য অঙ্গীকার বন্ধ থাকায় আমি দার্জিলিঙের কার্শিয়াংয়ে ভারত জোড়ো যাত্রার সমাপ্তিতে থাকতে পারছি না।'

অধীর চৌধুরী আলাদা করে অন্য দুই বাম শরিক সিপিআই ও ফরোয়ার্ড ব্লকেও আমন্ত্রণ জানান। তারাও একই কারণ দেখিয়ে যাবে না বলেই জানিয়েছে। অন্য দিকে পৃথক ভাবে বিমান বসুকেও আমান্ত্রণ জানানো হয়েছিল। যেহেতু দলের পক্ষ থেকে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে তাই তিনিও যাবে না বলে জানিয়েছেন। সূত্রে খবর, সিপিএমের পক্ষ থেকে দলের স্থানীয় কোনও নেতা 'ভারত জোড়ো যাত্রা'র সমাপ্তিতে থাকতে বলা হয়েছে।

বন্ধ করুন