বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কলকাতায় ‘টর্নেডোর’ আশঙ্কা, বাড়িতেই থাকার পরামর্শ মমতার
ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’-এর দাপট, সঙ্গে ভরা কোটালের দুর্ভোগে বিপর্যস্ত বাংলার একাংশ। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’-এর দাপট, সঙ্গে ভরা কোটালের দুর্ভোগে বিপর্যস্ত বাংলার একাংশ। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

কলকাতায় ‘টর্নেডোর’ আশঙ্কা, বাড়িতেই থাকার পরামর্শ মমতার

  • ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’-এর দাপট, সঙ্গে ভরা কোটাল - দুইয়ের সাঁড়াশি আক্রমণে বিপর্যস্ত বাংলার একাংশ।

ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’-এর দাপট, সঙ্গে ভরা কোটাল - দুইয়ের সাঁড়াশি আক্রমণে বিপর্যস্ত বাংলার একাংশ। তারইমধ্যে কলকাতায় টর্নেডো হতে পারে। নবান্নের তরফে এমনই আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। সূত্রের খবর, বেলা ১২ টার মধ্যে টর্নেডোর আশঙ্কা আছে। সেজন্য ওই সময়ের মধ্যে কলকাতারবাসীকে বাড়ি থেকে না বেরনোর পরামর্শ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বুধবার সকাল ন'টা নাগাদ ওড়িশার বালাসোরের দক্ষিণে ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’-এর স্থলভাগে প্রবেশের প্রক্রিয়া শুরু হয়। তা ঘণ্টাতিনেক চলবে। তারইমধ্যে বুধবার পূর্ণিমার ভরা কোটাল। তার জেরে রীতিমতো বিপর্যস্ত হচ্ছে পূর্ব মেদিনীপুর এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনার উপকূলবর্তী এলাকাগুলি। বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস মতো কলকাতায় সেভাবে ‘ইয়াস’-এর প্রভাব পড়েনি। মঙ্গলবার রাত থেকে দফায় দফায় বৃষ্টি হয়েছে। ঝোড়ো হাওয়া বইছে। দাপট অবশ্য বেশি নেই। তারইমধ্যে নবান্ন সূত্রে খবর, সকাল ১০ টা থেকে বেলা ১২ টার মধ্যে মহানগরীতে একটি টর্নেডো আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। সেজন্য মুখ্যমন্ত্রী বেলা ১২ টা পর্যন্ত কলকাতাবাসীকে বাড়ির বাইরে না বেরনোর পরামর্শ দিয়েছেন।

'ইয়াস' আতঙ্কের মধ্যেই মঙ্গলবার হালিশহর এবং চুঁচুড়ায় তাণ্ডব চালায় মিনি 'টর্নেডো'। দেড় মিনিটের ঝড়ে লন্ডভণ্ড হয়ে যায় উত্তর ২৪ পরগনার বীজপুরের বালিভাড়া গ্রাম। একই অবস্থা হয় চুঁচুড়ার পান্ডুয়ারও। গঙ্গার দু'পাড়ে অন্তত ৮০ টি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ভেঙে পড়ে গাছের ডাল, বিদ্যুতের খুঁটি। উড়ে যায় বাড়ির চাল।

বন্ধ করুন