বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Debjani Mukherjee: দেবযানীর মায়ের অভিযোগ ভিত্তিহীন, দাবি CID-র
দেবযানী মুখোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

Debjani Mukherjee: দেবযানীর মায়ের অভিযোগ ভিত্তিহীন, দাবি CID-র

  • তিনি আরও দাবি করেন, জেরার সময় সেই ঘরে ছিলেন জেলের এক আধিকারিক ও ১ মহিলা জেলকর্মী। ফলে হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে যে অভিযোগ উঠছে তা ঠিক নয়।

সিবিআইকে চিঠি দিয়ে বিস্ফোরক দাবি করেছেন সারদাকাণ্ডে জেলবন্দি দেবযানী মুখোপাধ্যায়ের মা। দাবি করেছেন, সুজন চক্রবর্তী ও শুভেন্দু অধিকারীর নাম নেওয়ার জন্য দেবযানীকে চাপ দিচ্ছে সিআইডির। দেবযানীর মা শর্বরী মুখোপাধ্যায়ের এই অভিযোগ পত্রপাঠ খারিজ করল সিআইডি। তাদের দাবি, ভিত্তিহীন অভিযোগ করছেন দেবযানী।

বুধবার সিবিআইকে একটি চিঠিতে দেবযানীর মা শর্বরী মুখোপাধ্যায় দাবি করেন, গত ২৩ অগাস্ট সারদাকাণ্ডে জেরা করার নামে জেলে যান অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় নামে এক সিআইডি আধিকারিক। সারদাকাণ্ড নিয়ে কয়েকটি প্রশ্ন করার পরই দেবযানীকে তিনি বলেন, তাঁকে শুভেন্দু অধিকারী ও সুজন চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে রাজসাক্ষী হতে হবে। বলতে হবে সুজন ও শুভেন্দু ২ জনই সুদীপ্ত সেনের কাছ থেকে ৬ কোটি টাকা করে নিয়েছেন। আর সেই টাকার লেনদেন হয়েছে তাঁর সামনে। সিআইডি আধিকারিকের এই প্রস্তাব পত্রপাঠ খারিজ করে দেন দেবযানী। তখন তাঁকে ওই সিআইডি আধিকারিক হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, কথা না শুনলে ৯টি ভুয়ো মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়া হবে তাঁকে। চিঠিতে তিনি আরও লিখেছেন, সুজন চক্রবর্তী বা শুভেন্দু অধিকারীকে কখনও সামনাসামনি দেখেননি দেবযানী।

শর্বরী দেবীর অভিযোগ খণ্ডন করে সিআইডির এক কর্তা জানিয়েছেন, ২৩ অগাস্ট দেবযানীকে জেরা করতে দমদম জেলে CID-র এক আধিকারিক গিয়েছিলেন একথা সত্যি। সিআইডির হাতে সারদাকাণ্ডের যে মামলাগুলি রয়েছে তার তদন্তে দেবযানীর সই করা কয়েকটি চেক সিআইডির হাতে আসে। সেই চেকগুলির ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করতে এক আধিকারিক দমদম জেলে গিয়েছিলেন। কেন ওই চেকগুলি দেওয়া হয়েছিল তা জানতে চেয়েছিলেন। কিন্তু দেবযানী সহযোগিতা করেননি।

তিনি আরও দাবি করেন, জেরার সময় সেই ঘরে ছিলেন জেলের এক আধিকারিক ও ১ মহিলা জেলকর্মী। ফলে হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে যে অভিযোগ উঠছে তা ঠিক নয়।

 

বন্ধ করুন